অনলাইন ডেক্সঃ

বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলায় সাত বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। আটক দুই কিশোরের বয়স ১৬ বছর। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে আটক করেছে পুলিশ। ধর্ষণের শিকার শিশুকে আজ শুক্রবার উন্নত চিকিৎসা ও মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় ওই শিশুর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর শরিফুল হক জানান, মামলার বিবরণ ও প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে চরশৈলদাহ গ্রামের দুই কিশোর প্রতিবেশী ওই শিশুকে আখক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করছিল। এ সময় ক্ষেতের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন শিশুটির বাবা। শব্দ শুনে তিনি আখক্ষেতে ঢুকে দেখেন, তার মেয়েকে ধর্ষণ করা হচ্ছে। তার চিৎকারে আশপাশের মানুষ ছুটে আসে। হাতেনাতে দুই ধর্ষক কিশোরকে ধরা হয়। পরে গ্রামের মাতুব্বররা বৈঠক করে ওই দুই কিশোরকে চড়-থাপ্পড় দিয়ে এবং মেয়ের বাবার পা ধরিয়ে ছেড়ে দেয়।

এরপর ওই শিশু অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিতলমারী হাসপাতালে নিয়ে যায় তার পরিবার। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই শিশুর চিকিৎসা করতে গড়িমসি করছিলেন। খবর পেয়ে থানার ওসি গিয়ে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। আজ শুক্রবার ওই শিশুকে উন্নত চিকিৎসা ও মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে অভিযুক্ত দুই কিশোর ছাড়া পেয়ে এলাকা থেকে গা-ঢাকা দেয়।

ওসি মীর শরিফুল হক আরো জানান, বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে বাগেরহাট পুলিশ সুপার ও সার্কেল পুলিশ সুপারকে জানানো হয়। তাদের দিকনির্দেশনা অনুযায়ী অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৪টার দিকে ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুই কিশোরকে আটক করা হয়েছে। এই ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *