জসিম উদ্দিন জনি
আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আদায়ের উদ্দেশ্যে যুবককে আটকে রেখে মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে অর্থ দাবীর ৩ ঘন্টার মধ্যে প্রতারক চক্রকে আটক সহ ভিকটিমকে উদ্ধার করেছেন আত্রাই থানা পুলিশ। সেই সাথে এই প্রতারক চক্রের আরো ২ সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। ২৭ মে বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে এবং ধৃত প্রতারকদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, গত ২৬ মে বুধবার দুপুরে মোঃ শাহাবর খান (৩৭) তার ভাগিনার শ্বশুর বাড়ি আত্রাই উপজেলার সাহেবগঞ্জে বেড়াতে আসে। কিন্তু তার ভাগিনা বাড়িতে না থাকায় ভাগিনা বউয়ের মামা মোঃ জয়নাল আবেদীন ফকার বাসায় নিয়ে গিয়ে চা-নাস্তা দেয়। এমত অবস্থায় প্রতারক চক্রের কয়েক জন সদস্য বাসায় গিয়ে বলে তারা খারাপ কাজ করছে। এ কথা বলে ভাগিনা বউ হাফিজা আক্তার হ্যাপিকে (২৩) মারধোর করে, এবং ভিকটিম সাহাবরকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ও মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে প্রতারক চক্র। প্রাণ বাঁচানোর তাগিদে ভিকটিমের ভাতিজা মোঃ আবু তালেব খান (৪০) প্রতারক চক্রের দুই মোবাইলে ৫০ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেয়।

এদিকে ভাগিনার পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি আত্রাই থানা পুলিশকে জানানো হলে, আত্রাই থানা তদন্ত (ওসি) মোঃ মোজাম্মেল হক কাজীর নির্দেশনায় সঙ্গীয় ফোর্স সহ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ৩ ঘন্টার মধ্যে প্রতারক চক্রের কাছ থেকে ৪৯ হাজার টাকা ও প্রতারক চক্রের ৩ জনসহ ভিকটিমকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

এ প্রতারক চক্রের ৩ সদস্যরা হলেন, উপজেলার পাচুপুর ইউনিয়নের মৃত নায়েব আলীর ছেলে চাকরীচ্যুত পুলিশ কনস্টেবল মোঃ আঃ মান্নান, (৫০) মোঃ সাইফুল ইসলামের ছেলে আতিকুর রহমান স্বধীন, (২২) কোবাদ সরকারের ছেলে মোঃ শামিম সরকার মামুন, (২৩)‌কে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় ভিকটিম মোঃ সাহাবর খান বাদী হয়ে নামিও ৩ জন সহ মোট ৯ জনের বিরুদ্ধে আত্রাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *