মিরু হাসান বাপ্পী
আদমদিঘী (বগুড়া) প্রতিনিধি

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের ছাতনী গ্রামে বসত বাড়ীর সীমানা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে বটির কোপের আঘাতে রবিউল ইসলাম (১৬) নামের এক এসএসসি পরীক্ষা গুরুত্বর আহত হয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিপক্ষ মুঞ্জু কবিরাজ কে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আটক করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে আদমদীঘি থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলার অন্যান্য আসামীরা হলেন, ফুলচানের ছেলে সাদেকুল (৫০) তার স্ত্রী আঞ্জুয়ারা (৪৫) ও মেয়ে শারমিন (২০)।

জানা যায়, উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের ছাতনী গ্রামের সাদেকুল করিবারজ ও দেলোয়ার কবিরাজদের মধ্যে বসতবাড়ীর সীমানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বসতবাড়ীর সীমানা নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয় এর একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হলে প্রতিপক্ষের মাছ কাটা বটি দ্বারা কোপ দিলে দেলোয়ার হোসেনের ছেলে রবিউল ইসলাম নামের ওই এসএসসি পরীক্ষার্থীর ঘাড়ে লেগে রক্তাক্ত জখম হয়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে আদমদীঘি হাসপাতালে নিলে তার অবস্থা অবনতি হলে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় আহতের বাবা বাদী হয়ে ৪ জনের নাম উল্লেখ করে আদমদীঘি থানায় একটি হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করলে পুলিশ মুঞ্জু কবিরাজ কে আটক করেছে। আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ জালাল উদ্দীন মামলা দায়ের ও আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *