মিরু হাসান বাপ্পী
আদমদিঘী (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ

বগুড়ার আদমদীঘি মহাসড়কে টমটমের ধাক্কায় সবুজ হোসেন নামের এক কৃষকের হাত ভেঙ্গে পঙ্গু হতে বসেছে। ৬ দিন বগুড়ার শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসা করার পর অবশেষে ভাঙ্গা হাতের ক্ষতিপূরন চেয়ে রোববার আদমদীঘি থানা পুলিশের শরণাপন্ন হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

জানা যায়, বগুড়ার আদমদীঘির ডুমুরী গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে কৃষক সবুজ হাসেন (৩০) গত ২৪ মে সকাল ৯ টার সময় শিবপুর মোড়ে মহাসড়ক দিয়ে হেটে শারীব সার কারখানার নিকট যাচ্ছিলেন। এ সময় পিছন দিক থেকে টমটম চালক ছোট আখিড়ার মফিজ উদ্দীনের ছেলে জহুরুল টমটম দিয়ে সবুজকে ধাক্কা দেয়। সবুজ আহত হলে তাকে প্রথমে উপজেলা হাসপাতালে নিলে তার অবস্থা অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে নিলে কর্মরত চিকিৎক পরিক্ষা নিরিক্ষা করে দেখে তার ডান হাত ভেঙ্গে গেছে। চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে ডান হাতে নাট বল্টু দিয়ে প্লাস্টার (ট্রমা সার্জারী) করে চিকিৎসা করেন তাতে প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়। বর্তমানে উন্নত চিকিৎসা করতে আরোও অনেক টাকার প্রয়োজন।

এ ব্যাপারে সবুজের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, গত ২৪ মে জহুরুলের টমটমের ধাক্কায় আমার হাত ভেঙ্গে যায় আমার সর্বস্ব অর্থ খরচ করে চিকিৎসা করেছি বর্তমানে আরোও অনেক টাকা লাগবে এতো টাকা জোগার করতে আমি হিমশিম খাচ্ছি।

আদমদীঘি থানার এস আই সোলাইমান আলী বলেন, টমটমের ধাক্কায় হাত ভাঙ্গা ঘটনায় অভিযোগ পাওয়া গেছে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *