মুহা. ফখরুদ্দীন ইমন, চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি: কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে সরব হয়ে উঠেছে স্থানীয় হাট-বাজারসহ গ্রামের চা-স্টলগুলো। বইছে নির্বাচনী হাওয়া, সম্ভাব্য সকল প্রার্থীই এখন মাঠে। বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে মানুষের সাথে কুশলবিনিময় করে নিজেদের প্রার্থীতার বিষয়ে জানান দিচ্ছেন সকলে। আলকরা ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন উপজেলা আ’লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক হেলাল, ঢাকা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক চেয়ারম্যান ইসমাইল হোসেন বাচ্চু, ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি খোরশেদ আলম ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক জিয়াদ হোসেন জাবেদ, কেন্দ্রীয় তথ্য-প্রযুক্তি লীগের সহ-সভাপতি, আ’লীগ নেতা মাঈন উদ্দীন ভূ্ইঁয়া।

এ বিষয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক হেলাল বলেন, জনগণের ভালোবাসা নিয়ে দুই দুইবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে প্রিয় নেতা সাবেক রেলপথ মন্ত্রী মো: মুজিবুল হক এমপি’র দিকনির্দেশনায় ইউনিয়নের যোগাযোগ ব্যবস্থা, শিক্ষা-সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নসহ সার্বিক উন্নয়নে ব্যাপক কাজ করেছি। সবসময় দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে জনগণের কাছাকাছি থাকতে চেষ্টা করেছি। স্থানীয় সরকারের সকল সেবা সাধারণ মানুষের কাছে সহজলভ্য করতে বিশেষভাবে কাজ করেছি। বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা সহ সরকারী বিভিন্ন প্রকল্পের আওতাধিন ত্রাণ সামগ্রী বিতরণে সুষম বন্টন নীতি অবলম্বন করেছি। প্রিয় নেতার নির্দেশে করোনা দূর্যোগের মুহুর্তে মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছি। দল আমাকে আবারো মনোনয়ন দিলে ইউনিয়নের অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করে সাধারণ মানুষের কল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দেব।

সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী, উপজেলা আ’লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক, বর্তমান ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াদ হোসেন জাবেদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে সাবেক রেলপথ মন্ত্রী মো: মুজিবুল হক মুজিব ভাইয়ের হাত ধরে দীর্ঘ ত্রিশ বছর যাবৎ আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত আছি। ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পেয়ে নেতাকর্মীদেরকে সংগঠিত রাখার বিষয়ে নিরলসভাবে কাজ করেছি। জনগণের আশা-আকাঙ্খার প্রতি সম্মান রেখে আসন্ন নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। প্রিয় নেতা মনোনয়ন দিলে নৌকার প্রার্থী হিসেবে বিজয় নিশ্চিতের লক্ষ্যে কাজ করবো। নির্বাচিত হলে মাদক, সন্ত্রাস নির্মূল সহ আলকরাকে একটি শান্তিপূর্ণ ইউনিয়নে রূপান্তরে কাজ করবো।

সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আ’লীগ নেতা মাঈন উদ্দীন ভূ্ইঁয়া বলেন, সবসময় ইউনিয়নের প্রতিটা নেতা-কর্মীর খোঁজখবর নিয়েছি। সামর্থ অনুযায়ী সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে সকলের পাশে থেকেছি সবসময়। প্রিয় নেতার নির্দেশে করোনা দূর্যোগে রাতের আঁধারে অসহায় দরিদ্র মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ সামগ্রীসহ বিভিন্ন সহায়তা পৌঁছে দিয়েছি। গত নির্বাচনেও আমি দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলাম। দলের সিদ্ধান্ত ও চৌদ্দগ্রামের গণমানুষের আস্থার শেষ ঠিকানা, সাবেক সফল রেলপথ মো: মুজিবুল হক মুজিব এমপি’র নির্দেশে তখন মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নৌকা প্রতীকের বিজয়ের লক্ষ্যে নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যানের জন্য মাঠে কাজ করি। এবারও দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী। প্রিয় নেতা মনোনয়ন দিলে ইউনিয়নবাসীকে সঙ্গে নিয়ে নৌকার বিজয় নিশ্চিতে কাজ করবো। নির্বাচনে জয়লাভ করলে মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিং, জঙ্গীবাদ নির্মূলে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করে অপরাধমূলক সকল কর্মকান্ড দমনে বিশেষ পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করবো। এছাড়াও রাস্তাঘাট, পুল-কালভাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় উপসনালয়ের অবকাঠামোগত উন্নয়ন সাধন করে আলকরা ইউনিয়নকে একটি শান্তির জনপদ ও মডেল ইউনিয়নে রূপান্তর করবো ইনশাআল্লাহ্।v

Leave a Reply