রাশিদুল ইসলাম,নাটোর প্রতিনিধিঃ

নাটোরের সিংড়ায় ঝুমকা খাতুন (২৬) কিডনি বিকল হয়ে মৃত্যু শয্যায় পান্জা লড়ছেন।

সে বিলদহর মৎস্যজীবি পাড়ার আকরাম হোসেন এর কন্যা। মা, রত্না বেগম একজন গৃহিনী।

পরিবারসূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের দিকে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পরে ঝুমকা। তারপর বিভিন্ন জায়গায় পরীক্ষা নিরীক্ষা করে ধরা পড়ে তাঁর একটি কিডনি নষ্ট, অপর কিডনি অকেজো প্রায়।

আকরাম হোসেনের এক মাত্র মেয়ে ঝুমকা ২০১২ সালে এসএসসি পাশ করে। তারপর দারিদ্র্যের কারনে বিয়ে হয়, স্বামী ও একজন দিনমজুর। দিন আনে, দিন খায়। আকরাম হোসেনের দুই ছেলে নাহিদ হাসান তাপস, এসএসসি পাশ। অপর ভাই হিমেল এসএসসি পাশ করে গার্মেন্টসে কর্মরত।
ঝুমকার বাবা বৃদ্ধ,অসুস্থ, কিছু করতে পারে না। তারপক্ষে সম্ভব না চিকিৎসার ভার বহন করা। সমাজের বিত্তবানরা যদি একটু এগিয়ে আসে, তাহলে উন্নত চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে উঠতে পারে ঝুমকা।

সম্প্রতি ঝুমকার খবর পেয়ে তাঁর বাড়িতে ছুটে যান সিংড়া মডেল প্রেসক্লাব সভাপতি রাজু আহমেদ সহ তাঁর সহকর্মীরা।

ঝুমকার পরিবার আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহম্মেদ পলক এমপি সহ সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

একেবারে দরিদ্র পরিবার ঝুমকার পাশে যদি সবাই নিজ নিজ জায়গায় থেকে সহযোগিতা করা যায়, তাহলে বাঁচবে একটি প্রাণ, বাঁচবে একটি স্বপ্ন।

যদি কেউ সহযোগিতা করতে চান, ০১৩০৩-১১৮৩৮৩ বিকাশ (পারসোনাল)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *