মোঃ আবু তৈয়ব. হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি :

ফটিকছড়ি উপজেলার নাজিরহাট পৌরসভার ২ নং ওযার্ডের পূর্ব সুয়াবিল এলাকা হালদা পাড়, দক্ষিণে হাটহাজারী উপজেলা ও পশ্চিমে সীতাকুণ্ড উপজেলার সুন্দরপুর উইনিয়নের পাঁচ পুকুরিয়া, ভুজপুর থানার পূর্ব সুয়াবিল নাইচ্ছার ঘাট এলাকায় হালদা নদীর উপর একটি সেতুর অভাবে তিন’উপজেলার প্রায় লক্ষাধিক জনগোষ্ঠি যাতায়াত সুবিধা থেকে বঞ্চিত রয়েছে।

স্বাধীনতার ৫০ বছর পরেও কোন সরকার এখানে সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয়নি। ফলে, এলাকাবাসী স্ব-উদ্যোগে অস্থায়ী ভিত্তিতে সাঁকো নির্মাণ করে কোন রকমে যাতায়াত করছে। বর্তমানে উক্ত পাঁচ পুকুরিয়া – পূ্র্ব সুয়াবিলের মাঝেই হালদা নদীর উপর এ সাঁকোটি নির্মাণ করা হয়। এ সাঁকো দিয়ে উপজেলার বিবিরহাট,বারৈয়ারহাট,
ব্রাহ্মনহাট, চুরখারহাট, বৈদ্দ্যরহাট, টেকের দোকান,চৌমুনী বাজর,এবং হাটহাজারী উপজেলার নাজিরহাট, নয়াহাট, উদালিয়া, কাটিরহাট, হাতিমারা ও সীতাকুন্ড উপজেলার বারবকুন্ড সহ অনন্ত: ৭ ইউনিয়নের জনগণ যাতায়াত করছে।

তাছাড়া, স্কুল-কলেজ এবং মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ সাঁকো পার হয়ে রীতিমত চলাচল করছে। এ সাঁকো দিয়ে কোন যানবাহন চলাচল করতে না পারায় অনেক সময় মুমূর্ষু রোগী নিয়ে বেকাদায় পড়তে হয়। অপরদিকে, কৃষি পণ্যসহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় মালামাল পরবহনে অতিরিক্ত ব্যয় গুনতে হয়। শুষ্ক মৌসুমে এ সাঁকো দিয়ে পারাপার সহজ হলেও বর্ষা মৌসুমে অধিকতর ঝুঁকি নিয়ে নদী পার হতে হয়। বিগত সময়ে নদী পার হতে গিয়ে শিক্ষার্থীসহ অনেকের প্রাণহানী ঘটে।

তাই, এখানে একটি নতুন সেতু নির্মাণের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী। এখানে নতুন সেতু নির্মাণ করা হলে এলাকার দৃশ্যপট পাল্টে যাবে এবং লাখো মানুষের জীবনযাত্রা বদলে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *