মিরু হাসান বাপ্পী
আদমদিঘী (বগুড়া) প্রতিনিধি:

প্রতি পি‌স তরমুজ ৪০ থেকে ৫০ টাকায় কি‌নে, ওই একই তরমুজ ওজনে বিক্রি হচ্ছে ২০০ অথবা ৩০০ টাকার বেশি দামে। ইচ্ছা থাক‌লেও অনেকের ক্রয় ক্ষমতার বা‌হি‌রে দাম হওয়ায় কিনতে পারছে না সাধারণ মানুষ, হতাশ ম‌নে ফির‌ছে বাড়ীতে।

রমজানের আগে তরমুজ ছিল প্রতি কেজি ৩০টাকা। রমজানের শুরুতে তা বেড়ে হয় প্রতি কেজি ৪০টাকা। কিছুদিন আগে ছিল প্রতি কেজি ৫০টাকা।সেই তরমুজ এখন বিক্রয় হচ্ছে কেজি প্রতি ৬০টাকা। কিছুদিন পরপর কেজিতে ১০ টাকা করে বৃদ্ধি পেয়েছে।

তরমুজ তো ব্যবসায়ীরা আগে থেকেই এনেছেন। লক ডাউনের মধ্যে নতুন করে কোনো ট্রাক আসেনি। তার মানে ব্যবসায়ীরা আগের দামে বিক্রি করতে পারতেন। কিন্তু তারা তা না করে অত্যন্ত বেশি লাভের আশায় এই রোজার মধ্যে সাধারণ মানুষের গলা কাটছে। এটা কি ব্যবসায়ীদের নীতি ? প্রশাসন কি কিছুই করবেন না?
এই সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় আনার জন্য আমি একজন সাধারণ মানুষ হিসাবে দাবী জানাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *