মোঃ গিয়াস উ‌দ্দিন রু‌বেল নোয়াখালী প্রতি‌নি‌ধি):
ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রায় ৫ হাজার অসহায় ও দরিদ্রদের মাঝে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণের সময় শৃঙ্খলা রক্ষা‌র্থে এক‌টি বি‌চ্ছিন্ন ঘটনা ভাইরাল হয়। যি‌নি গত এক মাস ধ‌রে প্রতি‌নিয়ত গরীব অসহায়‌দের সাহায‌্য সহ‌যো‌গিতা ক‌রে অাস‌ছেন। কেউ সাহায‌্য চে‌য়ে উনার কাছ থে‌কে ফেরত যাওয়ার খবর পাওয়া যায় নি। কা‌রো চি‌কিৎসার অর্থ যোগান, কা‌রো ঘর নির্মান ক‌রে দেওয়া, কোথাও স্কুল সংস্কারে সহ‌যো‌গিতা, কোথাও মস‌জিদ নির্মানে অনুদান, মু‌ক্তি‌যোদ্ধা‌দের অনুদান, সড়ক নির্মান এমন‌কি নিজ উপ‌জেলা ছাড়াও অন‌্য উপ‌জেলার কর্মী‌দের ও চি‌কিৎসায় অনুদান, ক্ষ‌তিগ্রস্ত ব‌্যবসায়ী‌দের সহ‌যো‌গিতা সহ প্রতি‌নিয়ত সহ‌যো‌গিতার হাত বা‌ড়ি‌য়ে দিয়ে‌ছেন। অসুস্থ‌্য থাকা অবস্থায় ও প্রতি‌নিয়ত কাজ ক‌রে যা‌চ্ছেন জনগ‌নের জন‌্য। করনাকালীন সম‌য়ে তি‌নি চে‌য়ে‌ছি‌লেন ভীড় না ক‌রে দ্রুত সম‌য়ে বিতরন কাজ শেষ কর‌তে, কিন্তু পেছ‌নে প্রচন্ড ভীড় থাকা স্ব‌ত্বেও বৃদ্ধা বারবার কাপড় পাল্টা‌তে গে‌লে ‌মেয়র রাগান্বিত হ‌য়ে তা‌কে স‌রি‌য়ে দেন।

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বৃদ্ধকে ঘুষি মারা নি‌য়ে এক‌টি ভি‌ডিও ক্লিপ সামা‌জিক মা‌ধ্যেমে ভাইরাল করা হয়। সে বিষ‌য় জান‌তে পে‌রে বৃত্ধা নি‌জেই ছু‌টে অা‌সেন পৌরসভা কার্যাল‌য়ে এবং সেদি‌নের বিষয়ে মুখ খুললেন সেই বৃদ্ধ।

শনিবার (১৭ জুলাই) সেই বৃদ্ধ আবার সাহায্য নিতে এসেছেন বসুরহাট পৌরসভা কার্যালয়ে। তার পরিচয়ে জানা যায় তিনি বসুরহাট পৌরসভার বাসিন্দা। তার নাম এনামুল হক কালু।

বৃদ্ধ এনামুল হক কালু বলেন, কাপড় দেওয়ার সময় আমরা ঝামেলা করি দেখে মেয়র সাহেব (আবদুল কাদের মির্জা) হাত দিয়ে সরিয়ে দিয়েছেন। আমারে কোনো মারে নাই, কিচ্ছু করে নাই। তিনি খুব ভাল মানুষ। গরিব মানুষকে তিনি সাহায্য করেন।

তিনি আরও বলেন, আমি আজকে আবার এসেছি মেয়র সাহেবের কাছ থেকে চাল নেওয়ার জন্য। আমি নিজ থেকে এসেছি উনার বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নাই। উনি সব সময় আমাদের সাহায্য করেন।

এর আগে শুক্রবার (১৬ জুলাই) সকালে ঈদুল আজহা উপলক্ষে অসহায় ও দরিদ্রদের মাঝে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণের সময় নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার এক অসহায় বৃদ্ধকে ঘুষি মারার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন কাদের মির্জা।

২০ মিনিট ৫৮ সেকেন্ডের ফেসবুক লাইভের মধ্যে ১৭ মিনিট ৩০ সেকেন্ডের সময় দেখা যায়, কাদের মির্জা এক বৃদ্ধকে শাড়ি দিয়েছেন। বৃদ্ধ শাড়িটি পরিবর্তন করতে চাইলে কাদের মির্জা তার বুকে ঘুষি মেরে সরিয়ে দেন। এরপর সেই বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার (১৬ জুলাই) রাত ৯টা ৪০ মিনিটে নিজের ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস দেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *