মোঃমেহেদী হাসান,কোঁটচাদপুর উপজেলা প্রতিনিধিঃ

কোঁটচাদপুর উপজেলা জুড়েই ঘূর্ণিঝড় জওয়াদের কারণে বৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে । আর মাত্র কদিন পরেই পাকা ধান ঘরে উঠবে। কিন্তু কৃষকের সেই স্বপ্ন এখন সর্বশান্ত হয়েছে।জওয়াদের কারণে টানা বৃষ্টি ও বাতাসে উপজেলার সক কয়টি ইউনিয়ন এর গ্রামের মাঠে ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ধান গাছ পড়ে পানিতে তলিয়ে গেছে।উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের মাঠ ঘুরে দেখা গেছে, মাঠের পর মাঠ পাক ধান গাছ পড়ে পানিতে ডুবে গেছে। ধানের ফলনও খুব ভালো হয়েছিল। কিন্তু টানা বৃষ্টিতে তার সব ধান পড়ে পানিতে ডুবে গেছে। যেমন আশা করেছিলেন তেমন ফসল ঘরে তুলতে পারবেন না।রাজাপুর গ্রামের আশরাফ মন্ডল বলেন, আমার চার বিঘা জমির সব ধান পড়ে পানিতে তলিয়ে গেছে। এই ধান চাষ দিয়েই আমার সংসার চলে। কিন্তু ভালো ফলন পাবেন না বলে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন তিনি।বলুহর গ্রামের কৃষক মোঃ মধু মিয়া বলেন, ধান সব পেকে গেছে। দু’এক দিনের মধ্যেই কাটা শুরু হবে। কিন্তু হঠাৎ এই বৃষ্টিতে বেশ ক্ষতি হয়ে গেল। আবার সবজির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। মাঠের পর মাঠ পাকা ধানের ক্ষেত মাটিতে পড়ে রয়েছে দেখে কৃষকরা হতাশ হয়ে পড়ছে।উপজেলার সুধীমহল বলেন, উপজেলার সব গ্রামের মাঠের ধান পড়ে পানিতে ভাসছে এর প্রভাবে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা কমে যাবে।

Leave a Reply