রাশিদুল ইসলাম,গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধিঃ

নাটোরের সিংড়া থেকে চলনবিলে ভাড়ায় যাত্রী নিয়ে নিখোঁজ নৌকার মাঝি আরজুর (৩০) লাশ ৩৬ ঘন্টা পর উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ শনিবার (২৮ আগস্ট) সকালে গুরুদাসপুর উপজেলার বিলশা বিল থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে শুক্রবার দুপুরে গুরুদাসপুর উপজেলার হরদমা এলাকা থেকে রক্তমাখা অবস্থায় নৌকাটি উদ্ধার করে পুলিশ। নৌকার মাঝি আরজু সিংড়া উপজেলার চামারী ইউনিয়নের আনন্দনগর গ্রামের মো. কদম আলীর ছেলে।

তার পরিবারের সদস্যরা জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে আরজু মিয়ার সঙ্গে মুঠোফোনে তাদের শেষ কথা হয়েছিল। এরপর থেকে তার ফোন বন্ধ ছিল।

সিংড়ার চামারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রশিদুল ইসলাম মৃধা বলেন, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে বিলদহর ঘাট থেকে যাত্রীসহ নৌকা নিয়ে চলনবিলে বেড়ানোর উদ্দেশ্যে বের হন আরজু মিয়া। রাতে বাড়ি না ফেরায় স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। শুক্রবার বেলা দুইটার দিকে গুরুদাসপুর উপজেলার হরদমা এলাকায় আত্রাই নদী থেকে রক্তমাখা অবস্থায় নৌকাটি উদ্ধার করা হয়।

সিংড়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার জামিল আকতার বলেন, নৌকার মাঝি আরজু মিয়ার ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে হত্যাকান্ড বলে মনে হচ্ছে। সিআইডির ক্রাইম টিম বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *