মোঃ আবু তৈয়ব. হাটহাজারী ( চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি :

করোনা প্রতিরোধক টিকা প্রাপ্তির জন্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) এর দেওয়া গুগল ফরমে নাম ও যাবতীয় তথ্য জমা দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক-অনাবাসিক আরও ১৩ হাজার ৬৫০জন শিক্ষার্থী।

শনিবার (১৭জুলাই) বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের সহকারী পরিচালক ড. কাজী তানভীর আহমেদ।

জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) না থাকায় করোনা প্রতিরোধক টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারছিলেন না চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের(চবি) অনেক শিক্ষার্থী। এছাড়া প্রায় অর্ধেকের বেশি শিক্ষার্থী আগে(৪মার্চ) টিকা প্রাপ্তির জন্য বিশ্ববিদ্যায়ের দেওয়া ফরমে নাম ও তথ্য তালিকাভুক্ত করেননি।

এই পরিস্থিতে শনিবার(১০ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বাদ যাওয়া ও এনআইডি না থাকা শিক্ষার্থীদের পুনরায় নাম ও তথ্য জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন। এক্ষেত্রে যাদের এনআইডি নেই তাদের জন্মনিবনন্ধন এর নম্বর দিতে বলা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের দেওয়া তথ্য অনুসারে, টিকা প্রাপ্তির জন্য নতুন করে ১৩ হাজার ৬৫০ জন শিক্ষার্থী তাদের নাম ও যাবতীয় তথ্য তালিকাভুক্ত করেছেন। এরমধ্যে আবাসিক ২ হাজার ৩৫৮ জন শিক্ষার্থী এবং অনাবাসিক ১১ হাজার ২৯২ জন শিক্ষার্থী রয়েছে।

তালিকাভুক্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে যাদের জাতীয় পরিচয় পত্র(এনআইডি) আছে এমন শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১০হাজার ৮০৫ জন এবং এনআইডি না থাকায় জন্মনিবনন্ধন এর নম্বর দিয়ে তথ্য জমা দিয়েছেন ২ হাজার ৮৪৫ জন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার(ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান এবিষয়ে বলেন, ইউজিসি আমাদের কাছে চাহিদা দিয়েছে। আমরা ইউজিসিতে তথ্যগুলো পাঠাবো।

তিনি আরও বলেন, জন্মসনদ নম্বর যারা দিয়েছেন, তাদের জন্য আমরা চেষ্টা করবো নির্বাচন কমিশনে যোগাযোগ করার তাদের যেন দ্রুত এনআইডি সরবরাহ করে। আমাদের ধারনা নির্বাচন কমিশন আমাদের এ ব্যাপারে সহযোগিতা করবে। আমরা শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করবো।

প্রসঙ্গত, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের তথ্যমতে ৪ মার্চের দেওয়া ফরমে আবাসিক আড়াই হাজার এবং অনাবাসিক প্রায় ১০ হাজার শিক্ষার্থী তদের নাম ও তথ্য তালিকাভুক্ত করে। তারা সেগুলো ইউজিসিতে পাঠায়। ইউজিসি থেকে চবির ১০হাজার ১ জনের একটি তালিকা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয় বলে জানা যায়।

Leave a Reply