সোহেল হোসেন লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:
শারিরিক এবং বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ফরহাদ হোসেন সাব্বির ওরফে রাব্বি গত ২৭ মে পরিবারের অজান্তে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। এর পর তার কোন খোঁজ পায়নি পরিবারের লোকজন। ছেলের সন্ধান পেতে নিকটস্ত থানায় সাধারণ ডায়েরী করে সাব্বিরের মা ববিতা বেগম। অবশেষে ১ জুন (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় তাকে ফিরে পায় পরিবারের সদস্যরা।

সাব্বিরের মা ববিতা বেগম (৪০) জানান, তাদের বাড়ি চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম সুবিধপুর গ্রামের ছৈয়াল বাড়ি। কয়েক বছর আগে তার স্বামী মো. খোকন মারা যায়। তার ১৬ বছর বয়সী ছেলে সাব্বির একজন শারীরিক এবং বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। গত ২৭ মে সকাল ১১টার দিকে কাউকে কিছু না বলে তার ছেলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তার সন্ধ্যান না পেয়ে গত ২৯ মে ফরিদগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরী করে তিনি।

এদিকে গত ২৯ মে নোয়াখালীর চাটখিল এলাকার বাসিন্দারা সাব্বিরকে পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে তুলে দেন। এ ব্যাপারে চাটখিল থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করা হয়। ইউএনও এএসএম মোসা উপজেলা শিশু কল্যাণ বোর্ডের সভাপতি। কল্যাণ বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তিনি সাব্বিরকে লক্ষ্মীপুর সরকারী শিশু পরিবার কেন্দ্রে হস্তান্তর করেন।

অন্যদিকে অনেক খোঁজাখুঁজি করে সাব্বিরের পরিবারের সন্ধান পায় ফরিদগঞ্জ উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়।

সাব্বিরের মাতা ববিতা আরও জানান, ১লা জুন (মঙ্গলবার) উপজেলা সমাজসেবা অফিস তাদের এলাকার ইউপি সদস্যকে বিষয়টি অবগত করে। ইউপি সদস্য লোক পাঠিয়ে তাদেরকে বিষয়টি জানান। পরে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে এসে ছেলেকে শনাক্ত করেন তিনি। পরে ওইদিন সন্ধ্যায় সমাজসেবা কার্যালয় থেকে তাকে বাড়ি নিয়ে যান তারা।
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান ঘটনটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, প্রতিবন্ধী সাব্বির ওরফে রাব্বিকে চাটখিল থেকে তাদের মাধ্যমে লক্ষ্মীপুর সরকারী শিশু পরিবারে রাখা হয়েছে। পরিবারের খোঁজ পাওয়ার পর তাকে তার মা ও আত্মীয়-স্বজনদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *