চাটমোহর অফিস :
তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে পাবনার চাটমোহর উপজেলার ছয় টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় সাতজনকে দল থেকে অব্যাহতি দিয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগ। জানা যায়, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে সংগঠনের সিদ্ধান্ত ও নির্দেশ অমান্য করায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ১৮ নভেম্বর সকাল ১১ টাই উপজেলা আওয়ামী লীগ এর দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগর সভাপতি এস এম নজরুল ইসলামর সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলন অনূষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগর সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক। ছয় টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় সাতজনকে দল থেকে অব্যাহতির বিষয়টি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে উপজেলা আওয়ামী লীগর সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক নিশ্চিত করেন।

সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক শৃঙ্খলা বিধি গঠনতন্ত্রের ৪৭ এর এক ধারা অনুচ্ছেদ অনুযায়ী আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠন থেকে বিদ্রোহী প্রার্থীদের পদবি ও প্রাথমিক সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।
অব্যাহতি প্রাপ্তরা হলেন হরিপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী হরিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রভাষক আবজাল হোসেন , মূলগ্রাম ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কোষধ্যাক্ষ আলহাজ শহিদুল ইসলাম , গুনাইগাছা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য রাজীব আলী বাবলু ।হান্ডিয়াল ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ গোলবার হোসেন , বিলচলন ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য আক্তার হোসেন । ফৈলজানা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ হাফিজুর রহমান , গুনাইগাছা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান ।

বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। দলীয় মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার নির্দেশ দেয়া হয় ওয়ার্ড পর্যায়ে নেতাকর্মীদের।

সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা কর্মী ও উপজেলার ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২৮শে নভেম্বর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply