রাকিব হাসান রোশান,স্টাফ রিপোর্টারঃ পাবনার চাটমোহর উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের পেশ ইমাম হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন হাফেজ মুফতি মাওলানা মোঃউবাইদুল্লাহ বিন আজাদ।

গত (২৯ মে) নিয়োগ পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে তিনি নির্বাচিত হন।

হাফেজ মুফতি মাওলানা মোঃউবাইদুল্লাহ বিন আজাদ হরিপুর ইউনিয়নের কাতুলী গ্রামের মাওঃ আবুল কালাম আজাদের ছেলে।

তিনি,“হিফজ” বাহাদুর মাদ্রাসা,“দাখিল” কাটাখালি আইনুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা,“আলিম” রাজশাহী দারুস সালাম কামিল মাদ্রাসা,“দাওরা” ইদ্রিস আলী বিশ্বাস ইসলামিয়া মাদ্রাসা, “ফাজিল” রাজশাহী দারুস সালাম কামিল মাদ্রাসা,“অনার্স” দাওয়াহ এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ
ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় কুষ্টিয়া,“ইফতা”(মুফতি)জামিয়া সুবহানিয়া মারকাজুল ফালাহ, খুলনা থেকে পাশ করেন।

পড়াশোনা শেষ করে,তিনি তার মধুর কন্ঠে বিভিন্ন ওয়াজ-মাহফিলে কুরআনের আলো পৌঁছিয়ে দিয়েছেন। এছাড়াও তিনি পূর্বে,পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় কুমড়াডাঙ্গা জামে মসজিদে ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

উচ্চ শিক্ষার জন্য বর্তমানে তিনি,ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় কুষ্টিয়া’তে “মাস্টার্স” সম্পূর্ণ করতে “দাওয়াহ এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ” বিভাগে অধ্যায়নরত আছেন।

দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় নির্মানাধীন ৫৬০ টি মডেল মসজিদ ও ইসলামীক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের মধ্যে মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে প্রথম পর্যায়ে ৫০ টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ (১০ জুন) বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় গনভবন থেকে ভার্চুয়ালীর মাধ্যমে মসজিদগুলো উদ্বোধন কালে পাবনার চাটমোহর উপজেলার নবনির্মিত মডেল মসজিদ ও ইসলামীক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে পাবনার জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ, পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান (বিপিএম) , চাটমোহরের সার্কেল সজীব সাহরীন, চাটমোহর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: আব্দুল হামিদ মাস্টার, চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সৈকত ইসলাম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শারমিন ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান মো: ইছাহক আলী মানিকসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ও এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত অনুষ্ঠানের,মিলাদ ও মুনাজাত পরিচালনা করেন হাফেজ মুফতি মাওলানা মোঃউবাইদুল্লাহ বিন আজাদ।

উন্নত আধুনিক স্থাপত্য শৈলীতে নির্মিত সম্পূর্ণ নতুন মসজিদে,সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত পেশ ইমাম মুফতি মাওলানা মোঃ উবাইদুল্লাহ্ বিন আজাদ প্রথম জামাতে ইমামতি করে উপজেলা মডেল মসজিদে নয়া ইতিহাস রচনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *