মোঃ সাইফুল ইসলাম, বাগমারা (রাজশাহী )প্রতিনিধি:
রাজশাহী মোহনপুর উপজেলার ৬ নং জাহানাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের আগামী নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হযরত আলী। তিনি বিগত ৬নং জাহানাবাদ ইউপি নির্বাচনে নৌকার মনোনীত প্রার্থী ছিলেন। এছাড়াও তিনি দলের বিভিন্ন দ্বায়িত্বের সু-ব্যবহারের কারনে ১৮ বছর যাবত এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন। সব মিলেই তিনিএকজন আওয়ামীলীগের লড়াকু সৈনিক।

এলাকাবাসিরা বলেন, করোনাকালিন মহামারিতে তিনি এলাকার সাধারণ জনগনের মাঝে সরকারী ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন। পাশাপাশি তিনি প্রকাশ্যে ও গোপনে ব্যাপক ত্রাণ বিতরণ করেছেন এলাকার জনসাধারণের মাঝে । এক কথায় কোন ভুক্তভুগীর পরিবার তার কাছে কোন সহযোগিতা চেয়ে ফেরত যায়নি।

তিনি এই প্রতিবেদকের সাথে একান্তে সাক্ষাৎকারে, জাহানাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান প্রার্থী হযরত আলী জানান, আমি বিগত দিনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ছিলাম এবারো যদি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে চাই অবশ্যই আমিই থাকবো ও নৌকা মার্কা নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করবো। আমি জনগনের পাশে আছি, আগামীতেই থাকবো। তবে আগামী ইউপি নির্বাচনে ইউনিয়নবাসি সঠিক সেবা পাওয়ার লক্ষ্যে আমাকে অথাৎ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকা মার্কাকে ভোট দিয়ে আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করবেন। বিগত নির্বাচনে আমার দলের একজন বিদ্রোহী প্রার্থী থাকার কারণে স্বল্প ভোটে বিএনপির প্রার্থীর কাছে পরাজিত হয়েছে। তার পরেও আওয়ামীলীগের দলীয় মাঠে আমি এখনও সক্রিয়।

তিনি আরো বলেন, জাহানাবাদ ইউপি বাসির যেসকল জন-দূর্ভোগে -ভুগছে তার আমি নিরোষন করবো। সর্বোপরি তিনি আরো বলেন,আমি যদি জননেত্রী শেখ হাসিনার দোয়া ও আশির্বাদ পায়। তাহলে বর্তমান সময়ের বাংলাদেশের যে উন্নয়নের ধারাবাহিকতায়, বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণের যে উন্নয়নের মহাযজ্ঞ চলছে তারই কিছু অংশ জাহানাবাদ ইউনিয়ন বাসিকে উপহার দিতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *