মোহাম্মদ হাসান আলী
জেলা ব্যুরোচীফ, টাঙ্গাইলঃ

সদর উপজেলার করটিয়া শীল পাড়ায় দুই সন্তানের জননী মাল্লিকা বেগম নামের (30) এক মহিলা ফাঁসিনিয়ে আত্নহত্যা করেছে। নিহত মল্লিকা সদর উপজেলার গোসাইবাড়ি কুমল্লি গ্রামের মিন্টু মিয়ার মেয়ে।
নিহত মল্লিকার বাবা মিন্টুমিয়া জানায় আট বছর আগে মির্জাপুর উপজেলার হাট ফতেপুর গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে বাদল (34) মিয়ার সাথে পাবিবারিক ভাবেই বিয়ে হয় মল্লিকার এবং তাদের ঘরে মোস্তাকিম (6) ও মুজাহিদ (4) দুইটি ছেলে সন্তান রয়েছে। এদিকে শুক্রবার রাত হতে মল্লিকা কে খুজে পাওয়া যাচ্ছিল না । মল্লিকার বাবা মিন্টুমিয়া জানায় শনিবার সকালে করটিয়া শীল পাড়ার ভজন শীল তাকে ফোন করে জানায় তার মেয়ে মল্লিকা শীল পাড়া ভবতোষের পতিত্যক্ত ঘরে ফাঁসি নিয়ে আত্নহত্যা করেছে। এ খবর পেয়ে মিন্টু মিয়া দ্রুত স্থানীয় ইউ পি সদস্য শাহিন কে জানান , শাহিন ঘটনাস্থলে গিয়ে সদর থানায় বিষয়টি অবগত করেন । সদর থানার সহকারি পরিদর্শক মোঃ ওয়াজেদ আলী জানান সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই এবং মল্লিকার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে টাঙ্গাইল সদর হাসপাতাল মর্গে ময়না তদন্ত্রের জন্য প্রেরন করা হয়েছে। করটিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা খালেকুজ্জামান চৌধুরী জানান যেহতু ফাঁসির ঘটনা সেহেতু ময়না তদন্ত্র ছারা কিছু বলা‌যাবেনা । এ ঘটনায় এলাকা জুরে জনমুখে রব উঠেছে শীল পাড়ার ভজনের সাথে মল্লিকার প্রেম ভালবাসা ছিল‌ । ভজনের সাথে মনমালিন্যর কারনে নিরুপায় হয়ে মল্লিকা আত্বহত্যার পথ বেছে নিতে পারে বলে অনেকের ধারনা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *