মোহাম্মদ হাসান আলী , টাঙ্গাইল
জেলা প্রতিনিধি:

জেলার কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা সামসুল হক কলেজের সামনে খোকন নামক এক ব্যক্তির নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের সিরি হতে সুমাইয়া (১৫) নামক এক স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয় এবং একই সাথে মনির (১৭) নামক এক কিশোরকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় আজ ২৭ অক্টোবর ২০২১ বুধবার সকালে।
স্থানীয়, পুলিশ ও নিহত সুমাইয়ার পরিবার সূত্রে জানা যায় সুমাইয়া সকাল ৭ টার দিকে এলেঙ্গা উচ্চবিদ্যালয়ের পাশে প্রাইম কোচিং সেন্টারে পড়তে যায় এ সময় তার সাথ ছিল মনির নামের এক কিশোর, এলেঙ্গা সামসুল হক কলেজের সামনে খোকন নামক এক ব্যক্তির নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের কাছে গেলে বখাটেরা হয়ত তাদের ডেকে ভিতরে নেয় এবং বিল্ডিংয়ের সিরিতেই সন্ত্রাসীরা ধারাল অস্ত্রের দ্বারা কুপিয়ে হত্যা করে সুমাইয়াকে এবং ঘটনা যাতে প্রকাশ না পায় হয়ত সেকারনে সাথে থাকা মনির কে জবাই করতে চেয়েছিল কিম্ত ভাগ্যক্রমে বেচে আছে। পুলিশ জানায় সুমাইয়ার মরদেহর পাশেই গুরুত্বর আহত ও অচেতন অবস্থায় কিশোর মনিরকে উদ্ধার করা হয় এবং স্থানীয়দের সহযোগিতায় মনিরকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নিহত সুমাইয়া উপজেলার পালিমা গ্রামের ফেরদৌস রহমানের মেয়ে এবং এলেঙ্গা উচ্চবিদ্যালয়ের
৯ম শ্রেণির ছাত্রী। একই উপজেলার ভাবলা গ্রামের মেহের আলীর ছেলে মনির। কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোল্লা আজিজুর রহমান জানান সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সুমাইয়ার রক্তাক্ত লাশ ও পাশে গুরুতর আহত ও অচেতন অবস্থায় মনির নামক এক কিশোরকে উদ্ধার করা হয় এবং মনির কে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সুমাইয়ার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে প্রেম ভালবাসর মত ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটতে পারে।

Leave a Reply