মিরু হাসান বাপ্পী
আদমদিঘী (বগুড়া) প্রতিনিধি:

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের একটানা লকডাউনে আদমদীঘিতে প্রায় এক হাজার পরিবহন বাস (মটর) শ্রমিক পরিবার মানবেতর জীবন যাপন করছে। একটানা এই লকডাউনে তারা সরকারী-বেসরকারী কোনরুপ ত্রান বা সাহায্য সহানুভতি স্বরুপ কিছু পাননি। ফলে তারা পবিার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে বলে জনাগাছে।
জানাযায়, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকার লকডাউন ঘোষনা করে। এই লকডাউনের ১৮তম দিন অতিবাহিত হলেও আদমদীঘি উপজেলায় বগুড়া জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়ন আদমদীঘি উপজেলা শাখার প্রায় এক হাজার শ্রমিক মানবেতর জীবন যাপন করছে বলে তারা জানিয়েছেন। বগুড়া মটর শ্রমিক ইউনিয়নের আদমদীঘি উপজেলা শাখার সভাপতি মোঃ মতিউর রহমান মতি ও সাধারন সম্পাদক মাসুদ চৌধরী বলেন এবারের লকডাউনে ট্রাক,সিএনজি,অটোর্চাজারসহ ছোট বড় সবধরনের পরিবহন চলাচল করলেও আমাদের বাস (মটর) পরিবহন পুরোপুরি বন্ধ আছে। এতে আমাদের শাখার প্রায় এক হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জবিন যাপন করছে। সংশ্লিষ্ট সংগোঠনের শ্রমিক সান্তাহার উপর পোঁওতা গ্রামের রেজভি ও পাথরকুটা গ্ৰামের আলমগীর হোসেন জানান, লকডাউনে ১৮ দিন যাবৎ বেকার, ঘরে খাবার নেই, সরকারী-বেসরকারী কোনরুপ ত্রান বা সাহায্য কিছু পায়নি। একই খথা বলেন সান্তাহার হাটখলা মহল্লার বাস চালক শহিদুল ইসলাম। কবে লকডাউন প্রত্যাহার করা হবে, কবে তাদের সংসারের চাকা ঘোরা শুরু হবে তা নিয়ে ভুক্তভুগি শ্রমিকরা হতাশাগ্রস্থ হয়ে পরেছে।এব্যাপারে সান্তাহার পৌরসভার মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টুর সাথে কথা বলতে মোবাইল করা হলে তিনি রিসিভ নারে কলটি কেটে দেওয়ায় সরকারী কোন ত্রান এসেছে কিনা বা আসবে কিনা তা জানা সম্বভব হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *