শফিউদ্দিন বিজন
দোয়ারা বাজার(সুনামগঞ্জ ) প্রতিনিধি:

দোয়ারাবাজারে ১৩টি বসতঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে ১৩টি পরিবারের ঘর ও ঘরের আসবাবপত্র পুড়ে প্রায় ৭০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) সকাল ১০ টায় আগুনের সূত্রপাত হয়। তবে কি থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে সঠিক ভাবে কেউ বলতে পারছে না।
এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ছাতক ফায়ার সার্ভিস অফিসে ফোন দিলে ১৮ কিলোমিটার ভাঙ্গা সড়ক আসতে আসতে এরমধ্যে ঘরের আসবাবপত্র টিন কাট বাস নগদ অর্থ সহ পুড়ে চাই হয়ে যায়। ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌছার আগেই স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। ঘর পুড়েছে যাদের তারা হলেন, দোহালীয়া ইউনিয়নের ভবানিপুর গ্রামের বড় বাড়ির মৃত আব্দুস সবুর মিয়ার ছেলে এমদাদুল হক রুবেল, আক্তার হোসেন, মৌলানা তুফায়েল আহমদ, আব্দুল ওয়াহাবের ছেলে গৌছ মিয়া, সুনু মিয়া, জহির মিয়া, সামছুদ্দুহারের ছেলে আমিনুল হক, উজ্জল মিয়া, ছুরাব উদ্দিনের ছেলে জসিম উদ্দিন, ইউনুছ আলীর ছেলে ইকবাল হোসেন, ইসমত আলীর ছেলে আসাদ মিয়া, ইসহাক আলী।
এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন দোহালীয়া ইউপি চেয়ারম্যান কাজী আনোয়ার মিয়া আনু সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ! ইউপি চেয়ারম্যান বলেন আমার ০৩ নং ওর্য়াড ভবানি পুর বড়বাড়ীতে যতা সম্ভব সটসার্কিট থেকে আগুন লেগে ১৩টি ঘর পুরেগেছে ১৩ টি পরিবার সন্তান সন্তুতি সহ মোট ৫৪ জন মানুষ খোলা আকাশের নিচে বসবাস করতেছে।পরিবারের সকল সদস্যদের সাথে আলাপ করে তাদের ক্ষতির পরিমান আনুমানিক ভাবে নির্নয় করে নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর প্রেরন করি। এবং মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব মুহিবুর রহমান মানিক মহোদয়ের সাথে আলাপ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও আমার সহযোগিতায় কিছু খাদ্য সামগ্রী ওইদিন বিকালেই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের হাতে তুলে দেই! আজ আবার আমার ইউনিয়নের প্রবাসী কল্যাণ সংস্থা থেকে ওই ১৩টি পরিবারের হাতে ত্রান বিতরণ করি!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *