শফি উদ্দিন (বিজন)
সুনামগঞ্জ দোয়ারা বাজার প্রতিনিধিঃ

২৮শে আগষ্ট শনিবার বাদ যোহর দোয়ারা বাজার উপজেলার ৬নং দোহালিয়া ইউনিয়নের প্রতাপপুর পয়েন্ট থেকে শুরু করে বিভিন্ন যায়গায় মাক্স বিতরন করেন তরুন সমাজ সেবক ০৬ নং দোহালিয়া ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বাইল্ডিং কন্ট্রাকশন এন্ড সাপ্লায়ার মেসার্স কাজী এন্টার প্রাইজের স্বত্বাধিকারী কাজী ফয়েজ মিয়া!

এ সময় উপস্থিত যুবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন বিশ্ব মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে দির্ঘদিন থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে। আর ওই সুযোগে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা পড়ার টেবিল ছেড়ে স্মার্ট মোবাইলে ফ্রি ফায়ার ও পাবজি গেমের দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ছে। দোয়ারা বাজার উপজেলা জুড়ে সর্বত্র এ চিত্র দেখা গেছে। খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি উঠতি বয়সের শিক্ষার্থীরা ও পুরো যুব সমাজ দিন দিন ফ্রি ফায়ার ও পাবজি নামক গেমের নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ছে। যে সময় তাদের ব্যস্ত থাকার কথা নিয়মিত পড়ালেখা নিয়ে। সেখানে তারা ডিজিটাল তথ্য প্রযুক্তির ওই খেলায় জড়িয়ে যেন নেশায় পরিণত হচ্ছে। এসব বিদেশী গেম থেকে তাদের ফিরিয়ে আনতে না পারলে বড় ধরণের ক্ষতির আশঙ্কা দেখা দিতে পারে! এব্যাপারে অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার আহবান জানাচ্ছি।

তাছাড়া আগামী ইউপি নির্বাচন নিয়ে অনেক কিছু বলার ছিলো কিন্তু বলবো না শুধু সময়ের অপেক্ষা আমি আমার জায়গা থেকে প্রতিবাদ করি। এতে কোনো কাজ হবে কি হবে না, তা ভেবেই করি ইনশাআল্লাহ! আমি এটাও জানি, আমার মতো একজন সাধারণ মানুষের কথায় গাছের পাতাও হয়তো নড়ে না। তবে প্রতিবাদ করি আমার নিজের দায়বদ্ধতা থেকে এবং মানসিকভাবে স্বস্তি পাওয়ার জন্যে; এই ভেবে যে, আমি অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছিলাম। মানুষের মর্যাদা নিয়ে বাঁচতে হলে প্রতিবাদের ভাষাও যে আত্মস্থ করতে হয়। এই শিক্ষা আমার আব্বা দিয়েছিলেন। পরিশেষে সবার কাছে দোয়া চেয়ে বিদায় নেন কাজী ফয়েজ মিয়া।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা গনফোরামের সদস্য,কয়ছর মাহমুদ,ইব্রাহিম আলী,জাকির হুসেন,জুবেদ মিয়া,খালেক মিয়া,শিমুল আহমেদ,রোমন তালুকদার,ইয়াহিয়া খান প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *