এম এইচ লিপু মজুমদার ধর্মপাশা প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার চামরদানী ইউনিয়নের আবিদনগর নোয়াগাঁও গ্রামে প্রতিপক্ষের ধারালো দায়ের আঘাতে দুর্জয় মিয়া নামের আড়াই বছর বয়সী এক শিশুটি নিহত হয়েছে। নিহত ওই শিশুটি ওই গ্রামের কৃষক ছালেক মিয়ার ছেলে। বাড়ির সীমানা নির্ধারণসহ পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে বিরোধের জের ধরে আজ শনিবার ( ২৮আগস্ট) বেলা দেড়টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী ও ওই শিশুটির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চামরদানী ইউনিয়নের আবিদনগর নোয়াগাঁও গ্রামের জয়নাল মিয়ার (৩৫) সঙ্গে একই গ্রামের প্রতিবেশি ছালেক মিয়ার (৩০) দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির সীমানা নির্ধারণসহ পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল ।

শনিবার বেলা দেড়টার দিকে ছালেক মিয়া তাঁর আড়াই বছর বয়সী ছেলে সন্তান দুর্জয়কে নিয়ে জয়নাল মিয়ার বাড়ির উঠান হয়ে প্রতিবেশি আরেক জনের বাড়িতে যাচ্ছিল। এ সময় জয়নাল মিয়া নিজ বাড়ির উঠানে ধারালো দা দিয়ে বাঁশ কাটছিল। কোনোকিছু বুঝে উঠার আগেই জয়নাল তাঁর হাতে থাকা ধারালো দা দিয়ে ছালেকের মাথায় আঘাত করতে উদ্যত হয়। এ সময় ছালেক তার মাথা সরিয়ে নিলে ওই দায়ের কোপ আড়াই বছরের শিশু দুরজয়ের মাথার মাঝখানে লাগে। মুমুর্ষজনক অবস্থায় ওই শিশুটিকে বিকেল পৌনে তিনটার দিকে ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে এলে সেখানেকার কর্তব্যরত ডাক্তার আনোয়ার জাহিদ সরকার শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।

শিশুটির আপন চাচী জ্যোস্না বেগম বলেন, আমার দেবর ছালেক মিয়ার সঙ্গে জয়নাল মিয়া বাড়ির সীমানা নির্ধারণসহ নানা বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আর এই বিরোধের জের ধরেই জয়নাল মিয়ার ধারালো দায়ের কোপের আঘাতে আড়াই বছর বয়সী শিশুটির মৃত্যু হয়েছে।

মধ্যনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নির্মল দেব শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে মুঠোফোনে বলেন, শিশুটির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনাটি নিয়ে থানায় এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ আমরা পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *