মোঃআনোয়ার হোসেন(বগুড়া)প্রতিনিধি : বগুড়ার ধুনট উপজেলায় যমুনা নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ৬জনের জেল-জরিমানা হয়েছে। বুধবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার মহন্ত তাদের দন্ডিত করেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, টাঙ্গাইলের ভুঞাপুর উপজেলার কুঠিপাড়া গ্রামের ফজর শেখের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৩০), খানুসবাড়ী এলাকার আজিতের ছেলে বেলাল হোসেন (২৫), সিরাজগঞ্জ সদরের ধানবান্ধি গ্রামের ওহেদ আলীর ছেলে আব্দুল হামিদ (৬০), বগুড়ার ধুনট পৌর এলাকার সরকারপাড়া গ্রামের অজয় সরকারের ছেলে সবুজ সরকার (৩০), সারিয়াকান্দি উপজেলার আওলাকান্দি গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে নাছিম হোসেন (২১) ও পূণ্য প্রামানিকের ছেলে কামাল হোসেন (৩৫)। এদের মধ্যে রফিকুল ইসলাম ও আব্দুল হামিদের ৫০হাজার টাকা করে অর্থদন্ড এবং অপর চারজনকে ৭দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। সিরাজগঞ্জ সদর নৌ-থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) বাবর আলী খাঁন বলেন, বগুড়ার ধুনট উপজেলার ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নে যুমনা নদীতে অভিযান চালানো হয়। অভিযানকালে চর খনন করে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন, পরিবহন ও টাকা আদায় কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে ৬জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া অবৈধ বালু উত্তোলন ও পরিহবনকাজে ব্যবহৃত ২টি ছোট নৌকা, ১টি বাল্ক হেড ও ১টি বোলগেড জব্দ করা হয়। পরে ভ্রাম্যমান আদালত গ্রেপ্তারকৃতদের জেল-জরিমানা করেন। ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন, বালু ও মাটি উত্তোলন আইন অনুযায়ী সরকারি অনুমতি ব্যাতিত বালু ও মাটি উত্তোলন, পরিবহন ও তাদের সহায়তাকারী সকলেই অপরাধী। বুধবার অভিযানকালে যমুনা নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন ও পরিবহনের ঘটনায় ৬জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে দু’জনের ৫০হাজার টাকা করে অর্থদন্ড এবং ৪জনের ৭দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *