শুভ চক্রবর্তী, নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি :
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত সদস্য হাজী মোঃ লিটন মেম্বারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনলাইন ও গনমাধ্যমে ভূয়া ও মিথ্যা তথ্য প্রচার করে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার প্রতিবাদে মঙ্গলবার(৩০ মার্চ ) বিকেল চারটায় শিবপুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মানববন্ধন করে অত্র ওয়ার্ডের লিটন মেম্বারপন্থী জনগণ।

মানববন্ধনে চলাকালে মোঃ হাজী লিটন মেম্বার বলেন,”আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সামাজিক ও গনমাধ্যমে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য ভূয়া তথ্য নিয়ে মিথ্যা নিউজ করানো হয়েছে তার প্রতিবাদে আমার ওয়ার্ডের জনগন আজ তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে। একটি কুচক্রী মহল সুর সম্রাট আলাউদ্দীন খাঁর নাম বিক্রি করে এলাকায় ফায়দা লুটতে চায় এবং তাঁরাই সুর সম্রাট আলাউদ্দীন খা’র সম্পত্তি গুলোকে কুক্ষীগত করে রেখেছে। এখন আমাকে ইস্যূ করে তারা এই অপরাধকে আড়াল করার জন্যে এখন সে মরিয়া হয়ে উঠেছে। খাঁ বাড়ি জামে মসজিদের জায়গায় বিক্রি করে মসজিদের উন্নয়ন করার জন্য কমিটিসহ সকলে মিলে সিদ্ধান্ত নিয়ে আমার কাছে জায়গা বিক্রি করে। আমিও তাদের সকল বৈধতা দেখে কলেজের পাশে খাঁ বাড়ি জামে মসজিদের জায়গাটা ক্রয় করি এখানে আমার কি অপরাধ? খাঁ বাড়ির জামে মসজিদের ভূয়া কমিটি সেজে আমার বিরুদ্ধে আদালতে বাদী হয়ে যিনি মিথ্যা মামলা করেছেন তার মুখোশ সবাই জানে তিনি আলাউদ্দিন খাঁর পরিবারের কতুটুক সম্পদ অবৈধভাবে কুক্ষিগত করেছেন।”

এ ব্যাপারে খাঁ বাড়ি জামে মসজিদের সভাপতি এবং আলাউদ্দিন খাঁর বংশধর তাঁনসেন খানের কাছে জানতে চাওয়া হলে, “তিনি বলেন আমাদের মসজিদের উন্নয়নের জন্য কমিটির সকলের সম্মতিক্রমে লিটন মেম্বারের কাছে মসজিদের জমি বিক্রি করেছি।”

মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহসীন খান বলেন,”আমরা কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়ে মসজিদটার বেহাল দশা থেকে আধুনিকায়ন করার জন্য চিন্তা করে মসজিদের জমি বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নেই। আলাউদ্দিন খাঁ’র পরিবারের সম্পত্তি গুলো শিশু খান অবৈধভাবে কুক্ষিগত করেছেন। শিশু খান তার অপরাধ গুলো ঢাকার জন্য খাঁ বাড়ির ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর নির্মিত জামে মসজিদের উন্নয়নের বিরুদ্ধে লেগেছেন এবং হাজী লিটন মেম্বারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।”

উল্লেখ্য গত কয়েকদিন আগে বিভিন্ন অনলাইন ও গণমাধ্যমে লিটন মেম্বারের বিরুদ্ধে আলাউদ্দিন খাঁ’র জমি ভূয়া দলিলে আত্মসাৎ করে এবং আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অবৈধ স্থাপনা নির্মান করার অভিযোগ আনে মোঃ শিশু মিয়ার লোকজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *