মাজহারুল ইসলাম বাদল ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি:

গণমাধ্যম, ফেসবুক ও টকশোতে নবীনগরের নানা অনিয়ম ও দুর্নীতি নিয়ে অব্যাহতভাবে লেখালেখি ও কথা বলার অপরাধে মাত্র একমাসের ব্যবধানে কালের কণ্ঠের নবীনগর প্রতিনিধি নির্ভীক সাংবাদিক গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপুর ওপর আবারও সশস্ত্র হামলা হয়ছে। এ সময় অপুকে বাঁচাতে গেলে সন্ত্রাসীরা মানবকণ্ঠের স্থানীয় সাংবাদিক মিঠু সূত্রধর পলাশের ওপরও হামলা চালায়। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে সাংবাদিক অপু নবীনগর থানায় চারজনের নাম উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। এজাহারে ুল্লেখ করা আসামিরা হলেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের স্থানীয় নেতা সীতানাথ সূত্রধর, তার ভাই শ্রীনাথ মীত্রধর, ভাগ্নে প্রাণেশ সূত্রধর ও ছেলে সুভাষ সূত্রধর
পুলিশ ইতিমধ্যে হামলাকারী সুভাষ সূত্রধর (৩৫) কে আটক করে থানা হাজতে ঢুকিয়েছে।
জানা গেছে, সাংবাদিক গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপু নবীনগর প্রেসক্লাবের পাশে থাকা সাংবাদিক মিঠুর ফার্ণিচার দোকানে বসে গল্প করছিলেন। এসময় আচমকা সীতানাথ সূত্রধর ও তার ছেলে সুভাষ সূত্রধরের নেতৃত্বে সশস্ত্র সর্ত্রাসীরা গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপুর ওপর লাঠেশোঠা নিয়ে হামলা চালায়। এসময় দোকান মালিক সাংবাদিক মিঠু সূত্রধর বাঁধা দিতে গেলে, সন্ত্রাসীরা তাকেও (মিঠু) মারধর করে। এসময় পুলিশকে খবর দেয়া হলে ওসি আমিনুর রশীদ নিজে ঘটনাস্থলে এসে সীতানাথ ও তাছেলে সুভাষসহ এজাহারভূক্ত চার আসামিকে থানায় ধরে নিয়ে যায়। সেখানে সুভাষ ওসির সঙ্গে তর্ক করায় তাৎক্ষণিকভাবে তাকে থানা হাজতে ঢুকিয়ে দেয়া হয়।
এ বিষয়ে সাংবাদিক গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপু বলেন,’গত বছর সীতানাথ সূত্রধরের ত্রাণের তালিকার অনিয়ম ও দুর্ণীতি নিয়ে আমি কালের কণ্ঠসহ ফেসবুক লেখালেখি ও টকশোতে কথা বলেছি বলে সীতানাথ আমার ওপর ক্ষিপ্ত ছিল। গতবছরের ওই ঘটনার পর সীতানাথ এর জের ধরে দুইবার আমার ওপর হামলা করার চেষ্টা করে এবং পরে সামাজিক মীমাযসায় আমার কাছে মাফ চায়। কিন্তু আজকের হামলা কেন হলো, সেটি আমি জানিনা। এর পেছনে কারা সীতানাথকে শেল্টার দেয়, সেটি তদন্ত করে বের করার জন্য আমি পুলিশের কাছে সনির্বন্ধ অনুরোধ করছি।
সাংবাদিক মিঠু সূত্রধর পলাশ বলেন,’আমার দোকানে বসে সাংবাদিক অপুদা দুপুরে গল্প করছিলেন। কিন্তু কিছু বুঝে ওঠার আগেই পরিকল্পিতভাবে অপুদার উপর এই সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়। আমা বাঁধা দিলে আমাকেও মারধর করা হয়। এর কঠোর বিচার দাবি করছি।’
এ বিষয়ে সীতানাথ সূত্রধরের সয়্গে বারবার কথা বলার চেষ্টা করেও তার মন্তব্য নেয়া যায়নি।
নবীনগর থানার ওসি আমিনূর রশীদ বলেন,’ঘটনার পরপরই পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়েছি। সীতানাথের ছেলেকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে সাংবাদিক অপুর লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে সেটির ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *