শুভ চক্রবর্ত্তী, নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি :

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার বিটঘর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডভুক্ত মধ্যপাড়া কাশারুবাড়িতে প্রায় ১৭৫ বছরের প্রাচীন শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দ জিউ ও বালক দ্বীনবন্ধু মন্দিরের জায়গা অপদখল এবং মন্দির সংলগ্ন স্কুলে নির্মিত টয়লেট সংস্কারের অভাবে ধর্মীয় কার্যক্রম বিঘ্নিত হওয়ার প্রতিবাদে এবং জায়গা উদ্ধার ও মন্দির পুনঃস্থাপনের উদ্দেশে মন্দির পরিচালনা কমিটির উদ্যোগে শনিবার (১৫ মে) সকাল সাড়ে এগারোটায় মন্দির প্রাঙ্গণে মানববন্ধন করেছেন শতাধিক সনাতন ধর্মাবলম্বী।

উপস্থিত ভক্তবৃন্দ জানান, প্রায় ২০০ বছর পূর্বে অত্র স্থানে শ্রী শ্রী রাধা কৃষ্ণের মন্দিরে পূজা অর্চনা করা হতো। মন্দিরের জন্য বরাদ্দকৃত স্থান ও সম্পদের উত্তরাধিকারী ছিলেন অত্র এলাকার প্রখ্যাত সাধক, ভগবান শ্রী কৃষ্ণের পরম ভক্ত বালক দ্বীনবন্ধুর পরিবারের লোকজন । ১৭৫ বছর পূর্বে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের আরাধনা কালে ধ্যানমগ্ন অবস্থায় মাত্র ১৭ বছর বয়সে এই মহাসাধক বালক দ্বীনবন্ধু দেহ ত্যাগ করেন এবং ওই মন্দিরেই তাকে সমাহিত করা হয়। সাধক বালক দ্বীনবন্ধুর মৃত্যুর পর থেকেই ওই মন্দিরের নাম হয় শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দ জিউ ও বালক দ্বীনবন্ধুর মন্দির। প্রতিবছরই মন্দিরে ১৭ মাঘ মহাসাধক বালক দ্বীনবন্ধুর প্রয়ান দিবস উপলক্ষে মহোৎসব অনুষ্ঠিত হয়।
কিন্তু, সম্প্রতি মন্দির সংলগ্ন একটি সরকারি প্রাইমারি স্কুলের দ্বিতীয় তলায় নির্মিত সিড়ি ও টয়লেটের সংস্কারের অভাবে ও মন্দিরের জায়গা অপদখলের ফলে নষ্ট হচ্ছে মন্দিরের পবিত্রতা এবং ব্যাহত হচ্ছে ধর্মীয় কর্মাদি।

এমতাবস্থায় মন্দির পরিচালনা কমিটির আহ্বানে মানববন্ধন করেন শতাধিক সনাতন ধর্মাবলম্বী স্থানীয় লোকজন। মন্দির কমিটির সভাপতি রতন কুমার দাসের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক নারায়ন সরকার, ভানু দেব, রুবেল দেব, শিমূল বনিক, মনিন্দ্র মজুমদার, সজল বনিক ও ডাঃ নারায়ন বনিক সহ আরো অনেকে।

এসময় বক্তারা, মন্দিরের সুরক্ষা এবং সাধক দ্বীনবন্ধুর নামে রেকর্ডকৃত জায়গায় মন্দির পুনঃস্থাপনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট সহযোগীতা এবং উক্ত সমস্যা সমাধানের জোর দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *