কেএম সুজন,স্টাফ রিপোর্টারঃ
টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার একটি আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে এর আসবাবপত্র, বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্থানীয় সাংসদ আহসানুল ইসলাম টিটুর ছবি ভাঙচুর করেছে দূর্বৃত্তরা।

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার গয়হাটা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আ’লীগ কার্যালয়ে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদের আগে নির্বাচনী এলাকায় ভীতি সৃষ্টির লক্ষ্যে এলাকার কিছু চিহ্নিত সন্ত্রাসী এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে দাবী করেছেন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতারা। এ ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী মাফিজুর খান বাদী হয়ে ১০জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ১৫/১৬ জনকে আসামী করে রবিবার সকালে নাগরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।ক্ষতিগ্রস্থ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ অফিস রাতেই পরিদর্শন করেছেন নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.আনিসুর রহমানসহ সঙ্গীয় ফোর্স।
জানা যায়, আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে নাগরপুর উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে ইতিমধ্যে নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করেছে। প্রতিটি আওয়ামী কার্যালয়ে চলছে নির্বাচনী আলোচনা। শনিবার রাতে উপজেলার গয়হাটার
দেওআকুটিয়ায় ৫নং ওয়ার্ড কার্যালয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীরা আলোচনা করছিল। হঠাৎ করে মোটরসাইকেলে করে একদল দূর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে ঢুকে নেতাকর্মীদের ধাওয়া দিয়ে অফিসে ভাঙচুর চালাতে থাকে। এসময় স্থানীয় নেতাকর্মীরা বাধা দিতে গেলে তাদের মেরে ফেলার হুমকী দিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। দূর্বৃত্তরা অফিসের আসবাবপত্র, বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ও স্থানীয় সাংসদের ছবি ভাঙচুর করে।

গয়হাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম বলেন, বর্তমান সময়ে এলাকার শান্তি বিনষ্ট করতে একদল দূর্বৃত্ত পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পরিবেশ অশান্ত করার একটি প্রক্রিয়া বলে আমি মনে করি। এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তি দাবী করছি।

এ প্রসঙ্গে নাগরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আনিসুর রহমান বলেন, এ ভাংচুরের ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছে। দ্রুত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *