এস ইসলাম, নাটোর জেলা প্রতিনিধিঃ
নাটোরের বড়াইগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু সন্তান জান্নাতুল (৪) কে বাঁচাতে নিজের জীবন দিলেন নুরজাহান বেগম (৩২) নামের এক মা। মঙ্গলবার (১৮ মে) পাবনা-নাটোর মহাসড়কে উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের গড়মাটি মুচিপাড়া এলাকায় এই মর্মান্তিক দূর্ঘটনাটি ঘটে। নুরজাহান গড়মাটি মুচিপাড়া গ্রামের মিলন উদ্দিনের স্ত্রী।

নিহতের স্বামী মিলন উদ্দিন জানান, তার সামনেই স্ত্রী নুরজাহান ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা যায়। স্ত্রী ও দুই সন্তানকে সাথে নিয়ে মহাসড়কের পাশে সবজির জমিতে ভেন্ডি তোলার জন্য যাচ্ছিলেন। সে (মিলন) ও ছেলে মোহিন (১৪) মহাসড়ক পার হয়ে গেলেও স্ত্রী নুরজাহান ও কন্যা জান্নাতুল (৪) মহাসড়ক পার না হয়ে পারাপারের অপেক্ষায় মহাসড়কের পাশে কাঁচা মাটিতে দাঁড়িয়েছিলেন। হঠাৎ ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্ত্রী ও কন্যা জান্নাতুলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল। তখন নিশ্চিত মৃত্যু হচ্ছে দেখে নুরজাহান তার কন্যা জান্নাতুলের হাত ধরে ছুড়ে দুরে ফেলে দেওয়ার সাথে-সাথেই ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন নুরজাহান। ট্রাকটি তখন চোখের সামনেই মহাসড়কের উপর আচড়ে উল্টে পড়ে যায় এবং মাতৃত্বের ভালবাসার দৃষ্ট্রান্ত রেখে দুনিয়া থেকে চির বিদায় নিয়ে চলে যান নুরজাহান। এসব কথা বলেই প্রলাপ করছিলেন স্বামী মিলন। দুর্ঘটনার পর নাটোর-পাবনা মহাসড়কে প্রায় ২ ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল। বনপাড়া হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লাশের সুরোতহাল তৈরী করে স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। ট্রাকটিকে জব্দ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *