মোঃ আবু আলম ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:

প্রেম প্রত্যাখান করায় অপহরন করে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে নীলফামারীর ডোমারে ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে ডোমার থানা পুলিশ ।এ ব্যাপারে মেয়েটির বাবা ডোমার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। যার নম্বর ০২ । তারিখ ৬/০১/২০২১ ইং । আজ বৃহস্পতিবার আসামীকে আদালতের মাধ্যমে জেলার জেলহাজতে প্রেরন করেছে পুলিশ ।

মামলা সুত্রে জানা গেছে,উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের মেয়েটি (১৩) পার্শ্ববতী উপজেলা দেবীগঞ্জ দাখিল মাদ্রাসায় ৭ম শ্রেনীতে লেখাপড়া করে। মেয়েটি মাদ্রাসা যাওয়া আসার পথে একই ইউনিয়নের জালিয়া পাড়ার ছস্তিস দাসের পুত্র শ্রী লাল মোহন দাস লিটন (২৫) প্রেম নিবেদন করে আসছিল। মেয়েটি প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করলে লিটন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে । গত ১৬ই ডিসেম্বর সকালে মেয়েটি মাদ্রাসায় উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে আর বাড়ীতে ফিরে না আসলে তার বাবা ডোমার থানায় একটি জিডি করেন । (নম্বর ৯০৫,তারিখ ১৯/১২/২০২০ ইং) ।

জিডির সুত্র ধরে গত ৬ই জানুয়ারী লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম থানার বাউরা বাজার হতে মেয়েটিকে উদ্ধার করে ডোমার থানা পুলিশ । এ সময় মেয়েটি পরিবারকে জানায়,গত ১৬ই ডিসেম্বর সকালে মেয়েটি দেবীগঞ্জ মাদ্রাসা যাওয়ার পথে ডোমার উপজেলার চিলাই পাগলা বাজার নামক স্থানে পৌছালে লিটন মেয়েটিকে ভয়ভীতি দেখিয়ে অপহরণ করে । এ সময় তার সাথে একই এলাকার কানা বাদশার পুত্র রেজাউল (৩৫) ও আনারুলের পুত্র রাকিব(২০) তাকে অপহরণে সহযোগিতা করে । অপহরন করে মাইক্রোবাসে লালমনির হাট জেলার পাটগ্রাম থানার বাউরা বাজার নামক স্থানের অজ্ঞাত বাড়িতে নিয়ে যায় । সেখানে গত ১৬ই ডিসেম্বর হতে ৫ই জানুয়ারী পযর্ন্ত পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে লিটন জোরপূবর্ক একাধিকবার ধর্ষণ করে । এ ব্যাপারে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করে ।

এ ব্যাপারে ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃমোস্তাফিজুর রহমান জানান,জিডির সুত্র ধরে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে আমরা অনুসন্ধ্না করি । লালমনির হাটের পাটগ্রাম থানার বাউরা বাজার নামক স্থান হতে মেয়েটিকে উদ্ধার করি । নির্যাতনের শিকার মেয়েটির স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নীলফামারী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে । লিটনকে গ্রেফতার করা হয়েছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *