মোঃআজিজুর বিশ্বাস,নড়াইল প্রতিনিধি:

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার বিএনপির বর্তমান আহবায়ক ও সাবেক লাহুড়িয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জিএম নজরুল ইসলামকে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে জখম করেছে একই দলীয় প্রতিপক্ষ।

ঘটনায় নড়াইল জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক টিপু সুলতানকে আটক করেছে লোহাগড়া থানা পুলিশ।

টিপু সুলতান কে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।
এ নিয়ে জেলা ও লোহাগড়া উপজেলা বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ২৯শে আগষ্ট রবিবার সকাল ১১ টার দিকে বিএনপির আহবায়ক নজরুল ইসলাম তার নিজ বাড়ি লাহুড়িয়া হতে লোহাগড়া আসার জন্য মোটরসাইকেল যোগে বের হলে পথিমধ্যে মরনমোড় নামক জায়গায় পৌঁছালে পূর্বথেকে ওৎ পেতে থাকা জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক টিপু সুলতান, বাটু, মফিজ,মিল্টন, মুছা সহ আরও অনেকে তার মোটরসাইকেলের গতি রোধ করে এবং এলোপাতাড়ি ভাবে তাকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে।

এরপরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর, উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে নড়াইল সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

ঘটনাটি দলীয় অভ্যান্তরীন কোন্দলে কারনে ঘটানো হয়ছে বলে জানা যায়।

এই ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক টিপু সুলতানকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে পুলিশ আটক করে বলে জানা যায়।

এদিকে হামলা কে কেন্দ্র করে নড়াইল জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফেরদৌস রহমান,এবং লোহাগড়া উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব সুলতান উজ্জামান সেলিম সহ,দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলন করেন এবং এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এবং হামলার সাথে জড়িত সকলের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দাবি করেন।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি শেখ আবু হেনা মিলন, মুঠোফোনে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।
এবং জানান টিপু সুলতান এই ঘটনার সাথে জড়িত বিধায় তাকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে,অভিযোগ পেলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply