নড়াইল প্রতিনিধি:
নড়াইলে মুলিয়ায় গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী কবিগান অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্বর্গীয় সূর্য্যকান্ত বিশ্বাসের স্মরনে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মুলিয়া স্কুল মাঠে এ কবি গান অনুষ্ঠিত হয়।
নড়াইল শহরসহ আশপাশের এলাকার হাজারো দর্শক শ্রোতা অধীর আগ্রহ নিয়ে গভীর রাত পর্যন্ত কবিগান উপভোগ করেন। কবিগানকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন শ্রেণির পেশার মানুষের মিলন মেলা হয়। স্বর্ন পদক প্রাপ্ত কবি মনিশংকর সরকার ও অপূর্ব লালা সরকার এ গানে পরিচালনা করেন। নড়াইল থেকে আসা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অশোককু্ন্ডু
বলেন, “এক সময় কবি বিজয় সরকারের গান মন্ত্রমুগ্ধের মতো শুনতেন এ অঞ্চলের মানুষ। এখন আর বিজয় সরকার বেঁচে নেই। তাঁর রচনা ও গাওয়া গান এখনও এ এলাকার মানুষকে আলোড়িত ও আন্দোলিত করে। এক সময় এ এলাকার মানুষের বিনোদনের একটি বড় মাধ্যম ছিল কবি, জারি, সারি ও ভাটিয়ালি গান। এর মধ্যে কবি গান ছিল অন্যতম। কালের বিবর্তনে এবং আধুনিকতার বেড়াজালে এসব গানের শ্রোতা একদিকে যেমন কমে গেছে, তেমনি কমে গেছে শিল্পীর সংখ্যাও। এরপরও কবিগানের কথা শুনলে এখনও মানুষ ছুটে আসেন দূর দূরান্ত থেকে।” স্বর্গীয় সূর্য্যকান্ত বিশ্বাস মুলিয়া এলাকার এক জন সুনামধন্য মানুষ ছিলেন। তার হাত দিয়ে অনেকে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তার সন্তানেরা তার স্মৃতি রক্ষার্থে এহেন আয়োজন। এই আয়োজন কে ধরে রাখবে এই কামনা করি। মুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ অধিকারী বলেন, “কবিগানে আমাদের শিকড়ের টান রয়েছে। তাই সবার এ গান বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করা উচিত।” ডাক্তার সূর্য্যকান্ত বিশ্বাসের ছেলে দীপ বিশ্বাস সুদীপ এরক একটি গান দেওয়ায় মুলিয়া ইউনিয়ন বাসী একত্রিত হয়ে এখানে সুন্দর একটি গান উপভোগ করতে পারছে।
এ বিষয়ে ডাক্তার দীপ বিশ্বাস সুদীপ জানান, আমার পিতার স্মরনে প্রতি বছর আমি ও আমার পরিবার এমন একটি গান দেব। এ অনুষ্ঠানে এত শ্রোতা ও দর্শক হবে এটা আমি ভাবতে পারিনি। আগামি বছর ও আমার পিতার স্মরনে এই মাঠে কবি গানের আয়োজন করব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *