মোঃ রিয়াজুর রহমান
পটুয়াখালী প্রতিনিধি :

পটুয়াখালীতে স্বামীর অত্যাচার এক গৃহবধূ থানায় অভিযোগ ৷ জীবনের নিরাপত্তা ও স্বামীর অত্যাচার থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য একটি অভিযোগ দায়ের করে জেসমিন আক্তার নামের এক গৃহবধূ গত ৮ইমে রোজ শনিবার এই অভিযোগ দায়ের করে পটুয়াখালী সদর থানায় ৷

জেসমিন আক্তার তিনি বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলায ঢলা চারা গ্রামের ইয়ামিন ফেদার স্ত্রী৷ ৷

এই অভিযোগের বিবরণীতে জানা যায় জেসমিন আক্তার স্বামী ইয়ামিন পেদা ( ৩৫) সাথে বিগত ৫ বৎসর ধরে বিবাহ বন্ধন হয় তারা উভয়েই সুখে জীবন যাপন করে ৷

এরই মধ্য দিয়ে তাদের মাঝে দুইটি ফুটফুটে কন্যা সন্তান আসে ৷ এভাবে তাদের পারিবারিক সংসার সুন্দরভাবে চলতে থাকে ৷ ইতিমধ্য জানা যায় তিনি তার নিজ বসত ঘরে গত ৫ই মে রোজ বুধবার জেসমিন আক্তার কে বিভিন্নভাবে শারীরিক নির্যাতন করে ৷

এরপর গত ৬ ই মে রোজ বৃহস্পতিবার জেসমিন আক্তার পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে ভর্তি হয় ৷ জেসমিন আক্তার তার সাথে থাকা ৮ মাস বয়সী কন্যা সন্তানকে তার বাবা ইয়ামিন পেদা এবং তার সাথে থাকা সহযোগীরা ইসরাত জাহান ইভা কে জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায় ৷ জেসমিন আক্তার বাধা দিলে তার স্বামী ইয়ামিন পেদা তাকে জীবননাশের হুমকি দেয় ৷ এই ঘটনা হাসপাতালে থাকা বিভিন্ন লোক গামে দেখতে পায় এবং হাসপাতালে থাকা কর্মরত নার্স ও বিষয়টি দেখতে পায় তাৎক্ষণিক ইয়ামিন পেদা চলে যায় ৷ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেসমিন আক্তার ভয় পেয়ে তার দুই কন্যা সন্তানকে নিয়া বাঁচার স্বপ্ন দেখে এবং পটুয়াখালী সদর থানায় অভিযোগ করে অভিযোগটি তদন্ত প্রক্রিয়াধীন আছে ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *