মোঃ রিয়াজুর রহমান
(পটুয়াখালী প্রতিনিধি ):

পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক লাখ লিটার স্যালাইন উপহার দেন অধ্যাপক অবঃ মেজর ডা. ওহাব মিনার, এ সময় উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালীর সুযোগ্য জেলা প্রশাসক মোঃ মতিউল ইসলাম চৌধুরী, সিভিল সার্জন ডা. মো. জাহাঙ্গীর আলম, দুমকি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ আব্দুল্লাহ সাদীদ, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মীর শহিদুল ইসলাম শাহীন, সহকারী কমিশনার ভুমি আল-ইমরানসহ আরও উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ইঞ্জিনিয়ার মো: কামাল হোসেন, প্রেস ক্লাব দুমকির অন্যান্য সাংবাদিক বৃন্দ ডা. ওহাব মিনার রোগীদের সাথে দেখা করে খোঁজ খবর নেন ও ডায়রিয়া প্রতিরোধে পরামর্শ দেন, তিনি বলেন দিনে তিনবার বা তার চেয়ে বেশি স্বাভাবিকের চেয়ে পাতলা পায়খানা হওয়াকে ডায়রিয়া বলে। ডায়রিয়া হলে শরীর থেকে পানি ও লবণজাতীয় পদার্থ বের হয়ে যায়। শরীরে পানিস্বল্পতা ও লবণের ঘাটতি দেখা দেয়। সময়মতো পানিস্বল্পতা ও লবণের ঘাটতি পূরণ না করলে রোগীর মৃত্যুও হতে পারে। সাধারণত অন্ত্রে বিভিন্ন ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের ফলে ডায়রিয়া হয়। ডায়রিয়া হলে যে পানি স্বল্পতা ও লবণের ঘাটতি দেখা দেয়, তা পূরণ করাই মূল চিকিৎসা। খাওয়ার স্যালাইনে পানিস্বল্পতা দূর করা যায়। মারাত্মক পানিস্বল্পতার লক্ষণ দেখা গেলে রোগীকে শিরায় উপযুক্ত স্যালাইন দিয়ে চিকিৎসা করতে হয়। এ জন্য রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করাই উত্তম। বাসি-পচা খাবার, মাছি বসা খাবার এবং বাইরের খোলা খাবার, শরবত বা ফলের রস খাওয়া থেকে সকলকে বিরত থাকার অনুরোধ জানান ৷৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *