ফরিদুল ইসলাম নয়ন(নারায়ণগঞ্জ সদর)প্রতিনিধি:নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকাতেই কিছু নির্দিষ্ট সংখ্যক পুলিশ সদস্যদের দায়িত্ব দেওয়া আছে। দায়িত্বরত সেই সকল পুলিশ সদস্য যথাযথ নিয়ম মানছে কি না? মামলার তদন্ত করছে কি না? এখন থেকে এ সব কার্যালয়ে বসে দেখতে পাবেন পুলিশ সুপার ও ডিআইজি। সঙ্গে সঙ্গে করতে পারবেন তদারকিও।
পুলিশের সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে বিট পুলিশিং ডিজিটাল মনিটরিং সিস্টেম নামক সফটওয়্যারের মাধ্যমে আধুনিক এই কার্যপদ্ধতি শুরু হচ্ছে নারায়ণগঞ্জে।
জেলা পুলিশের মুখপাত্র ও গোয়েন্দা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্তকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, ‘এই পদ্ধতি চালু হলে, পুলিশ সদস্যরা উর্ধতন কর্মকর্তাদের চাইলেই ভুল তথ্য দিতে পারবে না। পাশাপাশি গড়ে উঠবে ডিজিটাল তথ্য ভান্ডার।

৪ঠা মে (মঙ্গলবার) বিট পুলিশিং ডিজিটাল মনিটরিং সিস্টেম (বিপিডিএম‌এস) সফটওয়্যার প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেছেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম। ৪টি সেশনে নতুন এ সফটওয়্যার এর ব্যবহার সম্পর্কে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করবেন জেলার সকল অফিসার। প্রথম দিনেই ২টি সেশনে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম সমাপ্ত হয়েছে। আগামীকাল আরও ২টি সেশনের মাধ্যমে সমাপ্তি হবে কার্যক্রমের। ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজির তত্ত্বাবধানে সফটওয়্যার প্রশিক্ষকগণ কর্মশালায় প্রশিক্ষক হিসেবে প্রশিক্ষণ প্রদান করছে।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম বলেন, ‘বিপিডিএম‌এস চালু হলে প্রত্যেক পুলিশ সদস্যের কাজের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে। যাকে যে এলাকায় দায়িত্ব দেওয়া হবে, সেখানে যেতেই হবে। পাশাপাশি একজন পুলিশ কর্মকর্তা সারাদিন কোথায় কোথায় গেলো, কি কি কাজ করলো, সেটা আমরা এই সফটওয়্যারের মাধ্যমেই জানতে পারবো। কেউ যদি কর্মস্থল থেকে বাহিরেও চলে যায়, সেটাও আমরা জানতে পারবো। এতে করে পুলিশের সেবার মান বৃদ্ধি পাবে এবং কাজেও স্বচ্ছতা আসবে। এ ব্যবস্থা আগামী দিনগুলোতে আরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *