গতকাল ০১ জুন ২০২১ তারিখ ছিল সেই দিন। সারাদিন কেটেছে জন্মদিনের শুভেচ্ছা

ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপ, ইমো, ভাইবার সহ বিভিন্ন মাধ্যমে যাঁরা আমাকে উইশ করেছেন, আপনাদের সকলকে আমার পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা এবং ধন্যবাদ।

নানান ঝামেলায় কিংবা ভুলে যাওয়ার কারনে যারা আমাকে উইশ করতে পারেন নি, তাদের জন্যও আমার ভালোবাসা থাকবে।

আপনাদের সকলের ভালোবাসা, আন্তরিকতা আর আমাকে নিয়ে আপনাদের চাওয়া পাওয়া, আজ আমাকে নতুন উদ্যোমে চলার প্রেরনা যুগিয়েছে।

আমি বুঝতে পেরেছি, আমার অগোচরে আমাকে ভালোবাসার অনেক মানুষ আছেন, যা আমার জন্মদিনের মাধ্যমে বুঝতে পেরেছি। আমি কৃতজ্ঞ আপনাদের প্রতি।

আজ থেকে মৃত্যুর এক বছর কাছাকাছি চলে এলাম! জীবনটা অনেক সুন্দর যদি সুন্দর করে দেখা যায়। তবে একথাও ঠিক বিচিত্র এই জীবনে বৈচিত্রময় হয়ে ওঠা অনেকটাই কঠিন। যারা হয়ে উঠতে পারে তাদেরকেই মানবজাতি সারাজীবন মনে রাখে। আমার কথা তো কাল সকলেই ভুলে যাবে! তাতে আমার কোন আফসোস নেই, নেই কোন অভিযোগ। আমি শুধু ক্ষমাপ্রার্থী মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে।

সেই জন্য আমি আমার সৃষ্টিকর্তা মহান রাব্বুল আল আমিনের কাছে দায়বদ্ধ। তিনি আমায় সৃষ্টি করেছেন তিনিই আমার রব।

আমার মতো একজন অতিক্ষুদ্র মানুষের জীবনে যদিও জন্মদিনের তেমন কোন গুরুত্ব নেই তবুও আমার সৃষ্টিকর্তা মহান আল্লাহর প্রতি লাখো কোটি শুকরিয়া। আমার প্রাণপ্রিয় বাবা-মায়ের প্রতি সশ্রদ্ধ সালাম ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি যাদের কল্যাণে আমি আজ এই পৃথিবীর মুখ দেখেছি। আমি সবার কাছে দোয়া চাই। আমি যেন আমার জন্মকে সার্থক করতে পারি আমার কর্মের ও ব্যবহারের মাধ্যমে।

দেশে বিদেশে বর্তমান করোনার মহামারীতে মানুষ আজ হতাশাগ্রস্থ। মানুষের মাঝে আজ আন্তরিকতা, ভালোবাসার বড়ই অভাব। কেউ কাউকে যেন বিশ্বাসই করতে চায় না। এটা আমাদের জন্য দূভাগ্যের।

যারা আমাকে জন্মদিনের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছ আবারও সবার কাছে আমি অনেক কৃতজ্ঞ, সবাইকে জানাই আন্তরিক ধন্যবাদ।

লেখক : মোহাম্মদ মাহামুদুল, রেমিট্যান্স যোদ্ধা, মালদ্বীপ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *