বাহার উদ্দিন, ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ

ময়মনসিংহের জেলার ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব, শীতেষ চন্দ্র সরকার উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রকল্প পরির্দশন করে আসছেন।

নির্বাহী কর্মকর্তা মঙ্গলবার সকাল থেকে ৫নং ফুলপুর সদর ইউনিয়নের কর্মসৃজন, এলজিএসপি, টিআর ও কাবিখাসহ সব ধরণের প্রকল্প পরিদর্শন করেন। নবসৃষ্ট কাঁচা রাস্তায় গাড়িতে যাওয়া সম্ভব না হওয়ায় প্রায় ৫ কিলোমিটার পায়ে হেঁটেই পরিদর্শন করেন।

ইতিমধ্যে সঠিক বাস্তবায়নে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। গ্রামীণ জনপদে এমন উন্নতয়নের ছোঁয়ায় সাধারণ মানুষও খুশি বলে জানিয়েছেন।

ফুলপুর সদর ইউনিয়নের বাতিকুড়া গ্রামবাসী যাতায়াত দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। বিশেষ করে বন্যা নিয়ন্ত্রণের নামে অপরিকল্পিত স্লুইস গেট নির্মাণে পানি প্রবাহে বাধার সৃষ্টি হয়ে রাস্তার ভাঙনে ৫/৭ বছর ধরে বেশি বিপাকে রয়েছেন।
এ বছর বাতিকুড়া গ্রাম থেকে আলোকদি গ্রাম পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার কাচা রাস্তা নির্মাণ করা হয়। এরআগে আমার চেষ্টায় একটি সরকারী ব্রিজও হয়েছিল।

বর্তমানে রাস্তা হওয়ায় গ্রামবাসী নগুয়া হয়ে সহজে ফুলপুর আসতে পারবেন। এ রাস্তায় আমারসহ পরিবারের প্রায় ৫০ শতাংশ জমি চলে গেলেও ভাই চেয়ারম্যান হওয়ায় কিছু বলতেও পারিনি।
অপর দিকে ভরাট হয়ে খাল নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়ায় বৃষ্টির পানির জলবদ্ধতায় বনগাঁও-বাশতলা গ্রামের অন্তত ৫০ একর জমির বোরো ফসল তলিয়ে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্থ হতেন। এ বছর প্রায় এক কিলোমিটার জায়গা খনন করে খালটি পুনরুদ্ধার হওয়ায় কৃষকরা উঠতি ফসলের ক্ষতি থেকে রক্ষা পেলেন।
বিষয়টি দূর ও দুর্গম এলাকায় হওয়ায় আজ পর্যন্ত গিয়ে দেখার সাহস পাইনি। আমাদের সুযোগ্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার শীতেষ চন্দ্র সরকার সে পর্যন্ত গিয়েও পরিদর্শন করে এসেছেন। সরকারী প্রকল্প সঠিক বাস্তবায়নে উনার এ প্রচেষ্টায় আমরা নির্বাহী কর্মকর্তা কে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *