বাহার উদ্দিন, ফুলপুর (ময়মনসিংহ) জেলা প্রতিনিধি:ময়মনসিংহের ফুলপুরে আজ ২৮-০৯-২০২১ইং তারিখ রোজ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সারা দেশের ন্যায় ফুলপুর উপজেলায় আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস অনুষ্ঠিত হয়।
এ দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব শীতেষ চন্দ্র সরকার ইউএনও মহোদয় এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন ফুলপুর উপজেলার বর্তমান চেয়ারম্যান জনাব আতাউল করিম রাসেল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোকেয়া পারভীন লাকী। উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা বৃন্দ।
ইতিমধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন ফুলপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও যুগান্তর পত্রিকার প্রতিনিধি জনাব নাজিম উদ্দিন সাহেব ও সাধারন সম্পাদক সিটিজেন জার্নালিস্ট জনাব বিল্লাল হোসেন(B.S.TV) সাংবাদিক মিজান আকন্দ (দৈনিক আমার সংবাদ)প্রতিনিধি এবং সাংবাদিক রায়হান সহ আরও অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

একবিংশ শতকের তথ্য প্রযুক্তির এই বিশ্বে তথ্য পাওয়া ও জানার অধিকার যে কোনো দেশের নাগরিকদের অনেকটাই মৌলিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃত।

আজ ২৮ সেপ্টেম্বর বিশ্বজুড়ে পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস। ‘তথ্য সবার অধিকার: থাকবে না কেউ পেছনে আর’ এ প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশের মতো ফুলপুরেও দিবসটি পালিত হচ্ছে।

তথ্য জানার অধিকারের বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে প্রতিবছর দিবসটি পালন করা হয়। ২০১৫ সালে ইউনেস্কোর নেওয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০১৬ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর প্রথম তথ্য অধিকার দিবস পালন করা হয়।

এসময় সভাপতির বক্তব্যে ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব শীতেশ চন্দ্র সরকার বলেন।

তথ্য প্রাপ্তি ও জানা মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার। তথ্য মানুষকে সচেতন করে এবং সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করে। তথ্যের অবাধ প্রবাহ ও দেশের জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিতের জন্যই প্রণীত হয়েছে ‘তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯’। এ আইন আবশ্যিকভাবে তথ্য প্রাপ্তিতে জনগণকে দিয়েছে আইনি ভিত্তি। এর ফলে সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও সংবিধিবদ্ধ এবং সরকারি ও বিদেশি অর্থায়নে সৃষ্ট বা পরিচালিত বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের স্বচ্ছতা, জবাবদিহির পাশাপাশি দুর্নীতিমুক্ত পরিবেশে দায়িত্ব পালন ও সুশাসন প্রতিষ্ঠার পথ রচিত হয়েছে।

এক বক্তব্যে ফুলপুর উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব আতাউল করিম রাসেল বলেন তথ্য অথিকার আইনের সুফল জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে তথ্য কমিশনের পাশাপাশি জেলা, উপজেলা প্রশাসন নিরলস কাজ করে যাচ্ছে এবং জনগণের তথ্য প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বিরাজমান বাধাসমূহ দূর করতেও অব্যাহত প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে। তার সাথে সাথে তথ্য কমিশনের গৃহীত পদক্ষেপসমূহ জনগণকে তথ্য জানার অধিকার সম্পর্কে আরো সচেতন করবে।

Leave a Reply