গোলাম মোস্তফা ফুলপুর প্রতিনিধি:

আমরা কারা?নৌকা-
তোমরা কারা?নৌকা-
বাইয়া দেও-নৌকা-
জিতবে এবার নৌকা।

প্রার্থীদের গণসংযোগ আর মুখরোচক শ্লোগানে প্রচার-প্রচারণায় জমে উঠছে আসন্ন ফুলপুর পৌর নির্বাচন।প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি নিয়ে প্রার্থীরা ছুটছেন ভোটারের দ্বারে দ্বারে।প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন পরিছন্ন আধুনিক পৌরসভা গড়ার।৫ প্রার্থীর প্রত্যেকেই নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদি।

শহরের রাস্তাঘাট,অলিগলি ও পাড়া-মহল্লা এখন মিছিল আর স্লোগানমুখর।ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো শহর।চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বসতবাড়িতেও এখন আলোচনার বিষয় শুধু নির্বাচন।

আনাচে-কানাচে চষে বেড়াচ্ছে সকল কাউন্সিলর ও মেয়র প্রার্থীগণ,পৌরসভা এখন ব্যানার-পোস্টারে নতুন রূপে রূপায়িত।এরই মধ্যে পৌর মেয়র প্রার্থী হিসেবে স্বর গরম হয়ে উঠেছে নৌকার মাঝি শশধর সেনের নাম এ যেনো এক গণজোয়ার।তার কর্মীই তার শক্তি,মতামত শশধর সেনের।

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ প্রচারণায় ভোট প্রার্থনা করছেন।দিন-রাত গণসংযোগ,উঠান বৈঠক আর সভা-সমাবেশ মাধ্যমে ব্যস্ত সময় পার করছেন নৌকার প্রার্থী শশধর সেন।আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শশধর সেনের সাথে মনোয়ন চাওয়া বাকি প্রার্থীরাও নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী মাঠে গণসংযোগে নেমে পড়ায় অনেকটাই এগিয়ে থাকা নৌকা ভাসছে গণজোয়ারে।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায় এবার নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত,শশধর সেনের ক্লিন ইমেজে খুশি হয়ে প্রতিটি ওয়ার্ডের মানুষ ১৪ ই ফেব্রুয়ারি নৌকা প্রতিকে ভোট দেওয়ার জন্য উজ্জীবিত হয়ে আছে।

স্থানীয় আওয়ামীলীগ থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগের অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের সর্বস্তরের নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভোট চাইছেন।সেই সাথে পৌর শহরের উন্নয়নে এক জোট হয়ে শিক্ষক,ব্যবসায়ীসহ সর্বস্তরের মানুষ প্রকাশ্যে ভোট চাচ্ছেন নৌকার পক্ষে।পোস্টার,মাইকিং,গণসংযোগ,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম,উঠান বৈঠকসহ সব ক্ষেত্রেই নৌকার প্রচার চোখে পড়ার মতো।ফুলপুর পৌর নির্বাচনকে ঘিরে অনুসন্ধান এবং স্থানীয়দের সাথে কথা বলেন এ চিত্র উঠে এসেছে।

নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রচারে পিছিয়ে নেই অন্য মেয়র প্রার্থীরাও।নির্বাচনি প্রচারণায় যেন দম ফেলার সময় নেই তাদের।প্রচণ্ড শীতের প্রভাবকে পেছনে ফেলে মেয়র ও কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীরা নির্বাচনী এলাকা,চষে বেড়াচ্ছেন।পিছিয়ে নেই মহিলা প্রার্থীরা।তারাও মা-বোনদের ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন।

ধানের শীষের মনোনীত প্রার্থী আমিনুল হক ক্ষমতা ধরে রাখতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন।অপরদিকে স্বতন্ত্রে বিজয়ী হওয়ার জন্য মরিয়া নারিকেল গাছ প্রতীকের রকিবুল হাসান সোহেল।সাবেক মেয়র সতন্ত্র প্রার্থী মোঃ শাহজাহানের জগ প্রতিকের প্রচার প্রচারণা চলছে তুষের আগুনের মত।প্রস্তুতির কমতি নেই তাদেরও।এইচএম ইউসুফ শেষ মেষ আবার আইনী লড়াইয়ে বিজয়ী হয়ে ভোটের যুদ্ধে শামিল হয়েছে মোবাইল প্রতিকে,আটঘাট খুব একটা বাঁধা না থাকলেও ভোটের ভাগ বসতে পারে নারকেল গাছের ভোটে।নৌকা ধানের শীষ আর নারিকেল গাছের ত্রিমুখী লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে বলে মতামত রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টদের।

অন্যদিকে দলীয় নেতা-কর্মীরা স্বস্ব দলীয় মেয়র প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান নিলেও নির্দলীয় সাধারণ ভোটাররা নিরব ভুমিকা পালন করছেন।নির্দলীয় সাধারণ ভোটাররা মেয়র পদে ভোট দেওয়া-নেওয়ার ব্যাপারে একেবারেই মুখ খুলছেন না।এবারের নির্বাচনে নারী ভোটারদের যিনি মন জয় করতে পারবেন তিনিই হবেন মেয়র এমন মন্তব্য সচেতন মহলের।আর তরুন ভোটাররা বলছেন,সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকেই মেয়র বেছে নেবেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *