মিরু হাসান বাপ্পী
বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ

বগুড়ার শেরপুরের কঠোর শাটডাউনেও থেমে নেই ব্র্যাক কর্মীদের কিস্তি আদায়। বর্তমান এই পরিস্থিতে মানুষ কর্মহীন হলেও কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে বাধ্য হচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার (৪ জুলাই) শেরপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের কয়ারখালী বাজারে ব্র্যাক সেন্টারে দেখা যায় বাহির থেকে তালাবদ্ধ। কিন্তু মাঠকর্মীরা ঋণগ্রহীতার বাড়ি বাড়ি গিয়ে কিস্তির টাকা সংগ্রহ করছেন।

এ বিষয়ে শফিকুল ইসলাম নামে একজন গ্রাহক বলেন, তার কাছ থেকেও ব্র্যাকের কর্মী কিস্তির টাকা আদায় করেছেন। তবে কোন চাপ সৃষ্টি করে নাই।

তবে অপর একজন গ্রাহক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, তার সঙ্গতি না থাকলেও ধার করে কিস্তির টাকা পরিশোধ করেছেন। কিন্তু এ বিষয়ে কারও সাথে আলোচনা করলে পরবর্তিতে ঋণ দেওয়া হবে না বলে তাকে জানানো হয়েছে।

টাকা উত্তোলনের সময় জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মাঠকর্মী জানান, এই দুঃসময়ে টাকা তুলতে তাদেরও খারাপ লাগে। কিন্তু উর্ধ্বতন কর্মকর্তার আদেশ মান্য করা ছাড়া তার কোন বিকল্প নেই।

এ প্রসঙ্গে ব্র্যাকের খানপুর সেন্টারের ম্যানেজারের সাথে কথা বললে প্রথমে তিনি কিস্তি আদায়ের কথা অস্বীকার করেন। পরে তথ্যের ভিত্তিতে প্রশ্ন করলে এক পর্যায়ে স্বীকার করেন। তবে এধরণের ঘটনা আর ঘটবে না বলে অঙ্গীকার করেন।

বিষয়টি শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, এনজিও গুলোর কিস্তি আদায়ের বিষয়ে সরকারের সুনির্দিষ্ট কোন নির্দেশনা নেই। তবে যদি কেউ জোর করে আদায়ের চেষ্টা করে, প্রশাসনের পক্ষ থেকে মধ্যস্ততা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *