মিরু হাসান বাপ্পী
বগুড়া প্রতিনিধি:

বগুড়ার শিবগঞ্জ থানা পুলিশের কথা বলে ২ হাজার টাকা নেওয়ার সময় হাতে নাতে নূরনবী (৩৩) নামে এক দালালকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে শিবগঞ্জ থানা গেট সংলগ্ন এলাকায় থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। নূরনবী সোনাতলা উপজেলার গরমাতপুর গ্রামের কায়েশতুল্যার ছেলে।

পুলিশ জানায়, গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সালমারা ইউনিয়নের হিজরতপুর গ্রামের ছালেক মিয়ার মেয়ে রুবিনা বেগমের সঙ্গে শিবগঞ্জ উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের মাঝপাড়া গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে মাহাবুব হোসেনের বিবাহ হয়। পারিবারিক কলহের কারণে প্রায় তাদের ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকতো। এ এর জের দরে অসহায় রুবিনা বৃহস্পতিবার সকালে থানায় অভিযোগ দাখিল করতে আসেন। সঙ্গে তার পরিচিত যুবক নূরনবীকে আনেন। নূরনবী শিবগঞ্জ থানা পুলিশকে দেওয়া লাগবে বলে অসহায় রুবিনা বেগমের কাছ থেকে ২ হাজার টাকা নেয়। বিয়ষটি জানতে পেরে পুলিশ হাতে নাতে প্রতারককে গ্রেফতার করে।

এব্যাপারে রুবিনা বেগম বলেন, থানা পুলিশকে টাকা দেওয়ার কথা বলে আগেও ১৫শ টাকা নিয়েছে। আজ আবারও পুলিশকে টাকা দেওয়া লাগবে বলে ২ হাজার টাকা নিয়েছে। বিষয়টি পুলিশকে জানালে তাকে আটক করে।

শিবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, পুলিশের কথা বলে ২ হাজার টাকা নেওয়ার প্রমাণ মিললে প্রতারককে আটক করা হয়েছে। পরে সেই ২ হাজার টাকা উদ্ধার করে রুবিনাকে ফেরত দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *