মিরু হাসান বাপ্পী
বগুড়া জেলা প্রতিনিধি

বৈরি আবহাওয়া চলতি মৌসুমে উত্তরাঞ্চলে এবার আগাম শীতকালীন সবজি চাষে ক্ষতি হলেও বাজারে দাম ভালো হওয়ায় খুশি চাষিরা। এ অঞ্চলের সবচেয়ে বেশি সবজি চাষ হয় বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায়। উত্তরাঞ্চলের পাশাপাশি রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ হয়ে থাকে মহাস্থান হাট থেকে।

বগুড়ার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সবজি পাঠানো হয়। মহাস্থান হাটে শীতের সব ধরনের সবজির আমদানি বেড়েছে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলার সবজি ব্যবসায়িরা মহস্থান হাট থেকে ফুলকপি, বাঁধাকপি, বরবটি, মূলা, লাউ ও মিষ্টি কুমড়াসহ বিভিন্ন সবজি প্রতিদিন নিয়ে যাওয়া হয় দেশের বিভিন্ন জেলায়।

গুড়ার মহাস্থান এলাকার ফুলকপি চাষি সামছুল আলম জানান, “আগাম চাষের কারণে দাম ভালো। প্রতি মণ ১৪শ‘ থেকে ১৫শ‘ টাকায় বিক্রি করেছি। ফুলকপির দামও ভালো হওয়ায় এবার সবজির চাষে খুশি কৃষক।”

বগড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার ফুলকপি চাষি আজমল হোসেন জানান, “প্রতিবছর অন্যের জমি বর্গা নিয়ে ফুলকপি চাষ করি। গতবারের চেয়ে এবছর ফলন অনেক বেশি। আগাম চাষের কারণে তুলনামূলক ভাল দাম পাচ্ছি।”

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) বগুড়ার উপ-পরিচালক এনামুল হক জানান, বগুড়া জেলায় এ বছর ১২শ ৭০ হেক্টর জমিতে ফুলকুপি চাষ করা হয়েছে। ফুলকপিসহ অন্যান্য সবজির ফলন তুলনামূলক ভালো হয়েছে। এ বছর ৩৪ হাজার ৫৪৪ মেট্রিকটন ফুলকপি উৎপাদন হয়েছে। তবে এখনো জমিতে অনেক ফুলকপি পরিচর্যায় আছে। ফলনের পরিমাণ বাড়তে পারে।”

Leave a Reply