মিরু হাসান বাপ্পী
বগুড়া জেলা প্রতিনিধি

সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মোট ২৭ হাজার ২৭৮জন এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের শুক্রবার ব্যতীত আগামী ১০ দিন ফাইজারের টিকা প্রদান করা হবে। এজন্য তিনটি কেন্দ্র বেঁছে নেয়া হয়েছে। কেন্দ্রগুলো হলো- সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজ। সরকারি শাহ সুলতান কলেজ এবং পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজ। গুড়ায় শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা দেয়া শুরু!!

অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেশের বেশ কয়েকটি জেলার ন্যায় বগুড়াতেও সাড়ে ২৭ হাজার এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে করোনার টিকা দেয়া শুরু হয়েছে। বুধবার সকাল ১১ টায় শহরের মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজে টিকা প্রদানের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ জিয়াউল হক। কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর জোহরা ওয়াহিদা রহমানের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে সিভিল সার্জন ডাঃ গওসুল আজিম চৌধুরী, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. বেলাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(আইসিটি ও শিক্ষা) নিলুফা ইয়াছমিন, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সামির হোসেন মিশু, জেলা শিক্ষা অফিসার রমজান আলী আকন্দ উপস্থিত ছিলেন।

করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় দীর্ঘদিন পর স্কুল-কলেজ খোল হলেও করোনা থেকে ঝুঁকিমুক্ত ছিল না শিক্ষার্থীরা। ফলে দীর্ঘ সময় পর হলেও টিকা নিতে পারায় খুশি
শিক্ষার্থীরা। টিকা গ্রহণ করতে শিক্ষার্থীদের সাথে আসা অভিভাবকরা জানান, নানা জটিলতা শেষ করে শিক্ষার্থীরা করোনার টিকা নিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারছে এতে তারা খুশী।

টিকা নিতে আসা এইচএসসি পরীক্ষার্থী শাহানাজ আকতার প্রিয়া জানান, দীর্ঘদিন পর স্কুল ও কলেজ খোলায় আমরা ক্লাস করতে পারছি। তবে আমরা করোনা নিয়ে আতঙ্কে ছিলাম। এখন আমরা টিকা নিতে পেরে খুশি। এতে আমরা নির্ভয়ে ও নিবিঘ্নে পরীক্ষা কেন্দ্রে যেতে পারবো এবং আমরা করোনা থেকে ঝুঁকিমুক্ত থাকবো।

নিলুফা ইয়াসমিন জানান, আদৌ টিকা পাবে কিনা তা নিয়ে চরম অনিশ্চয়তা ছিল। অবশেষে সে জটিলতা কেটে এখন টিকা নিতে পেরেছি। এ জন্য সরকারকে ধন্যবাদ।

সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সামির হোসেন মিশু জানান , প্রথম দিনে উৎসবমুখর পরিবেশে সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজে ১৪৫০জনকে এবং সরকারি শাহ সুলতান কলেজে ১৮১০জন এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে এ টিকা দেয়া হবে। পর্যায়ক্রমে

Leave a Reply