মিরু হাসান বাপ্পী
বগুড়া প্রতিনিধি:
বগুড়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে আব্দুর রাজ্জাক (৪৯) নামে এক ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২। তবে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় দণ্ডিত আব্দুর রাজ্জাকের দ্বিতীয় স্ত্রী মনোয়ারা বিবিকে খালাস দেন আদালত।

ওই আদালতের বিচারক নূর মোহাম্মদ শাহরিয়ার কবীর বৃহস্পতিবার দুপুরে আসামীদের অনুপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করেন। রায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আব্দুর রাজ্জাকের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছর সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়।

বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রইব্যুনাল-২ এর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আশেকুর রহমান সুজন জানান, জেলার কাহালু উপজেলার গোয়ালপাড়া গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে আব্দুর রাজ্জাকের দুই স্ত্রী। প্রথম স্ত্রীর নাম এলেমা বেগম আর দ্বিতীয় স্ত্রী মনোয়ারা বিবি। আব্দুর রাজ্জাক যৌতুকের দাবিতে তার প্রথম স্ত্রীকে নির্যাতন করতো। এরই ধারাবাহিকতায় ২০০৭ সালের ২৪ ডিসেম্বর সে তার প্রথম স্ত্রী এলেমা বেগমকে মারপিট করার পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। ওই ঘটনায় সেদিন কাহালু থানায় একটি অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা হয়।

পরবর্তীতে লাশের ময়না তদন্তে শ্বাস রোধ করে হত্যার প্রমাণ পাওয়ায় নিহত এলেমা বেগমের ভাই হাফিজার রহমান ভগ্নিপতি আব্দুর রাজ্জাক এবং তার দ্বিতীয় স্ত্রী মনোয়ারা বিবিসহ ৬জনের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন। আদালত ওই মামলাটিকে এফআরআই হিসেবে গ্রহণ করতে কাহালু থানাকে নির্দেশ দেন। এরপর পুলিশ তদন্ত শেষে আব্দুর রজ্জাক ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী মনোয়ারা বিবির বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ১৩ জুলাই আদালতে চার্জশীট দাখিল করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *