বাগমারা প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় মারুফ হাসান (৭) নামের এক শিশুকে শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) বালিশচাপায় শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সে উপজেলার শুভডাঙ্গা ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের মা বাদি হয়ে বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ পিতা শাহাজান আলী ও শিশুর সৎ মা মুক্তা বেগম কে পুলিশ গ্রেফতার করে।
পুলিশ ও এলাকা সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকালে শিশু মারুফ হাসানকে বাড়িতে সৎ মায়ের কাছে রেখে তার বাবা শাহজাহান আলী কাজের জন্য বাইরে যান। শিশুটি অস্বাভাবিক আচরণ করছে বলে সৎ মা মুক্তা বেগম মুঠোফোনে তার স্বামীকে জানান। স্বামীর পরামর্শে পানি শিশুর নাকে মুখে পানি ছিটিয়ে দেওয়া হয়। এতে কোনো উন্নতি হয়নি। এক পর্যায়ে শিশু অচেতন হয়ে পড়ে। এসময় চাচা ও প্রতিবেশিরাও ছুটে এসে শিশুর চেতনা ফেরানোর চেষ্টা করে। তবে শেষ পর্যন্ত সম্ভব হয়নি। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে শিশু মারা যায়।
ছেলের মৃত্যুর খবর পেয়ে অন্যত্র বিয়ে হওয়া শিশু মারুফ হাসানের মা মারুফা বেগম ছুটে আসেন। ছেলেকে মেরে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুর লাশের সুরাতহাল প্রতিবেদন প্রস্তত করে। ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।
বাগমারা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আফজাল হোসেন জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। দুইজন কে গ্রেফতার করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য উদ্ধার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *