এস ইসলাম, নাটোর জেলা প্রতিনিধি:

স্বামীর উপর অভিমান করে নাটোরের বাগাতিপাড়ায় সুরভি আক্তার প্রিয়া (২৫) নামে এক গৃহবধূ বিষ পান করে (তরল জাতীয় কীটনাশক ঔষধ) আত্নহত্যা করেছে।

বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) সকালের দিকে উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের সালাইনগর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত সুরভি প্রিয়া ওই গ্রামের গোলাম মোস্তফার স্ত্রী ও পার্শ্ববর্তী উপজেলা লালপুরের চংধুপইল ইউনিয়নের সোভ (দিদার পাড়া) গ্রামের মোঃ শহিদুল ইসলামের মেয়ে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, ঈদের পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে স্বামী ছাড়া প্রিয়া তার বাবার বাড়ি যাবেনা বলে জিদ ধরে। এনিয়ে স্বামী মোস্তফার সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এরই একপর্যায়ে মোস্তফা তার স্ত্রী সুরভি প্রিয়াকে তাদের সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়ি যেতে বলে গরুর জন্য ঘাস কাটতে মাঠে চলে যায়। পরে বেলা সাড়ে ১০টার দিকে বাড়ি এসে দেখে তার স্ত্রী সুরভি বিষ পান করে পড়ে আছে। সাথে সাথে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় বাগাতিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এ সময় হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ নাজমুল সাকিফ তার ইসিজি করিয়ে তাকে নাটোর সদর হাসপাতালে রের্ফাড করেন। নাটোর নেয়ার পথেই প্রিয়া মারা যায়।

বাগাতিপাড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, প্রথমে ওই গৃহবধূর বাবা মেয়ের মৃতদেহ লালপুর থানাধীন তার বাড়ি নিয়ে যায়। পরে লালপুর থানা আত্নহত্যা শুনে লাশটি থানায় নিয়ে যায়। কিন্তু পরে জানতে পারে সুরভি প্রিয়া বাগাতিপাড়া থানাধীন এলাকায় আত্নহত্যা করেছে সেজন্য পরে লাশটি বাগাতিপাড়ার সালাইনগর গ্রামে তার স্বামীর বাড়িতে পাঠায়। তারপর সেখানে সুরতহাল শেষে মরদেহ উদ্ধার করে বাগাতিপাড়া মডেল থানা পুলিশ। পরে এদিন (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যায় ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহটি নাটোর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ বিষয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) বিকেল ৩ টায় মৃতের বাবার বাড়ি সোভ গ্রামে তার জানাজা শেষে দাফন সম্পূর্ণ হবে বলে মৃত প্রিয়ার বাবার পরিবার জানিয়েছে।

Leave a Reply