রাশেদুল হক অন্তর ,বাঘা প্রতিনধি :

বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবেন না’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে আশ্রায়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় রাজশাহীর বাঘা উপজেলার গড়গড়ি ইউনিয়নে সরকারি খাস জমিতে গৃহহীনদের পুনর্বাসনের জন্য গৃহ নির্মাণের শুভউদ্বোধন করেন বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও)পাপিয়া সুলতানা ।

বুধবার (৫মে) সকালে আশ্রায়ন-২ প্রকল্পের আওতায় গড়গড়ি ইউনিয়নে ৭ নং ওয়ার্ডের চাঁনপুর বাজারের দক্ষিনে পদ্মা নদীর তীরে পলাশী মৌজায় প্রথমে ৪টি ও পর্যায়ক্রমে খাস জমি দখল মুক্ত করে গুচ্ছোগ্রামে পরিনত করা হবে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পাপিয়া সুলতানা ।

গড়গড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম বলেন,সরকারের এই আশ্রায়ন-২ প্রকল্পে মাধ্যমে আমার ইউনিয়নের অসহায় ভূমিহীন দরিদ্র মানুষের নিজের নতুন ঠিকানা তৈরী সহ নিজের নামে জমিসহ বাড়ী পাচ্ছেন।

সহকারী কমিশনার(ভূমি) কামাল হোসেন বলেন,উপজোলায় এই প্রকল্পের মাধ্যমে ২০ জনকে ২শতাংস জমিসহ গৃহ বাছায়কৃত ব্যাক্তিকে তার নিজ নামে বন্দোবস্তকৃত করা হবে।ইতিমধ্যে মনিগ্রাম ইউপিতে ৮ জন,বাউসা ইউপিতে ৮ জন এবং আজ গড়গড়ী ইউপিতে ৪ জনের জন্য গৃহ নির্মাণের কার্যকর্ম অনুষ্ঠিত হলো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পাপিয়া সুলতানা বলেন,আশ্রায়ন-২ প্রকল্পের আওতায় প্রতিজনের জন্য ১লক্ষ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে আধাঁপাকা (টিনসেড) গৃহ নির্মাণ করে ভূমি ও গৃহহীন ইউপি চেয়ারম্যান দের বাছাইকৃত মানুষদের বন্দোবস্তকৃত মাধ্যমে হস্তান্তর করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পাপিয়া সুলতানা গৃহ নির্মানের উদ্বোধনি সময় উপস্থিত ছিলেন, সহকারী কমিশনার(ভূমি)কামাল হোসেন,গড়গড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম, ইউনিয়ন ওয়ার্ড সদস্য ও খাঁনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *