চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাটে বিজিবির সোর্স শিপন মিয়া সহ ৭জনকে আসামী করে ১০জানুয়ারি হবিগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল সুলতান উদ্দিন প্রধানের আদালতে জাবেদ ওমর ইমরান বাদী হয়ে
মামলাটি দায়ের করে।

মামলার বিবরনিতে বাদী উল্লেখ করে গত ৬জানুয়ারি বিজিবির সোর্স শিপন ও মাদক ব্যাবসায়ী ওয়াসিম সহ
৭আসামি যোগসাজশে তার বড় ভাই এনাম কে পার্শ্ববর্তী আমুরোড বাজার থেকে আসামি ওয়াসিমের বাড়িতে নিয়ে যায় একপর্যায়ে ওয়াসিম এবং অন্যান্য আসামীগণ তার বড় ভাই এনামের পকেটে ১২৬ পিছ ইয়াবা রেখে বিজিবি সোর্স শিপনকে খবর দেয়।
খবর পেয়ে শিপন ঘটনাস্থলে আসলে মাদক কারবারি ওয়াসিমসহ ৭জন তার বড় ভাই এনামের উপরে নির্যাতন চালায়।
একপর্যায়ে ওয়াসিমের বাড়ি থেকে এনাম কে টমটম যুগে সুন্দরপুর গ্রামের ক্লিনিকের সামনে খুঁটিতে বেঁধে বিজিবি সোর্স শিপনসহ ৭ আসামী এনাম এর উপর অমানুষিক নির্যাতন চালায় যা এনামের চোঁখে গুরুতর জখম হয়।
পরবর্তীতে শিপন সীমান্তবর্তী ছিমটিবিল সীমান্তের টহলরত বিজিবি জওয়ানদের খবর দিলে তারা এনামকে ১২৬পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার দেখিয়ে চুনারুঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দিয়ে চুনারুঘাট থানা স্থানান্তর করে।
পরবর্তীতে চুনারুঘাট থানা পুলিশ এনামকে কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

উল্লেখ্য গুরুতর জখমী এনাম, উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের কালা মন্ডল গ্রামের মৃত নানু মিয়ার বড় ছেলে।

Leave a Reply