বিরামপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুরের বিরামপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ৪ মাদক সেবনকারীকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (১৮মে) সকাল ১১টার সময় বিরামপুর উপজেলার চরকাই,ইসলামপাড়া গ্রামে এবং কাটলা ইউনিয়নের (উত্তর দাউদপুর) গ্রামে এই অভিযান পরিচালিত হয়।

বিনাশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন- চরকাই গ্রামের শ্রী. গনেশ এর পুত্র শ্রী. হৃদয় (৪৫) একই গ্রামের শ্রী. তুলশী রবিদাস এর পুত্র শ্রী. স্বপন রবিদাস (২৫), ইসলামপাড়া মহল্লার মোঃ আশরাফুল এর পুত্র মোঃ আকাশ (২০)এবং কাটলা ইউনিয়নের (উত্তর দাউদপুর) গ্রামের আনছার আলীর পুত্র মোঃ শাহাদাৎ হোসেন (৩০)। মাদকদ্রব্য সেবনের অপরাধে প্রত্যককে এই কারাদণ্ড প্রদান করেন-উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিমল কুমার সরকার।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়-মঙ্গলবার সকালে বিরামপুর উপজেলার চরকাই ও ইসলামপাড়া গ্রামে এবং কাটলা ইউনিয়নের (উত্তর দাউদপুর) গ্রামে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানকালে মাদকদ্রব্য সেবনের অপরাধে শ্রী.হৃদয়, শ্রী স্বপন রবিদাস,মোঃ আকাশ এবং মোঃ শাহাদাৎ হোসেন এই চারজন ব্যক্তিকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮(৩৬)(১) ধারায় ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিমল কুমার সরকার জনতার বিবেক টিভিকে বলেন-মাদকের বিরুদ্ধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র জিরো টলারেন্স বাস্তবায়নের নির্দেশনায় বিরামপুর উপজেলা প্রশাসন এবং আইন-শৃংখলা বাহিনী কঠোর তৎপরতা রয়েছে। এ অভিযান নিয়মিত অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন বলেন-মাদকদ্রব্য সেবনের অপরাধে ৪ জন মাদকসেবনকারীকে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে আসামীদের দিনাজপুর জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন-মাদকদ্রব্য বিক্রি এবং মাদকদ্রব্য সেবন নিমুল করার লক্ষে বিরামপুর থানা পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে। মাদকের বিষয়ে কোন ছাড় নাই। যেসব স্থানে মাদক বেচাকেনা হয়,সেখানে নিয়মিত এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে এসআই মাহাবুব আলমের নেতৃত্ব বিরামপুর থানা পুলিশের একটি টিমসহ উপজেলা প্রশাসন অফিসের স্টাফরা উপস্থিত ছিলেন।

এধরনের মাদকদ্রব্য বিক্রি ও মাদকদ্রব্য সেবনকারীর বিরুদ্ধে অভিযানকে এলাকাবাসী সাধুবাদ জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *