সুজন কুমার,নাটোর:

নাটোরের বড়াইগ্রামে গৃহবধু শাহীনুর খাতুনকে গলা কেটে হত্যার আসামী মতিউর রহমানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বেলা এগারোটার দিকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক প্রেসবিফিংয়ে এই তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক যুবায়ের। তিনি জানান, পরকীয়ার জন্যে ঘৃণায় প্রতিশোধ থেকে এই হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে তদন্তে উঠে এসেছে। হত্যাকান্ডের শিকার শাহিনুর খাতুনের স্বামী রাশিদুল ইসলাম অভিযুক্ত হত্যাকারী মতিউরের স্ত্রী আছমা খাতুনকে নিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। এরই জেরে প্রতিশোধ নিতেই ৩ জুন রাত্রি দেড়টার দিকে মতিউর তার গরুর ঘাসকাটা হাসুয়া নিয়ে রাশেদের বাড়িতে যায় এবং চুপিচুপি শাহিনুর খাতুনের ঘরে প্রবেশ করে।
ঘুমন্ত অবস্থায় ৯ মাসের গর্ভবতী শাহিনুর খাতুনকে হাসুয়া দিয়ে জবাই করে। শাহিনুরের মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য তার ২ পায়ের মাংস কেটে দেয়। তদন্তে মতিউরের সম্পৃক্ততা পেয়ে তদন্তকালে প্রাপ্ত তথ্যাদি ও আধুনিক প্রযুক্তির সহায়তায় অত্র হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত অপর সন্দিগ্ধ মতিউর রহমানকে তার নিজ বাড়ি উপজেলার ভবানীপুর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *