নাটোর প্রতিনিধি :
নাটোরের বড়াইগ্রামের মাঁঝগাও ইউনিয়নের ঢুলিয়া গ্রামে মসজিদের ইমামতি নিয়ে সংঘর্ষে ৮জন আহত হয়েছে। বুধরার বিকেল ৪টায় এই ঘটনা ঘটে। আহতদের বড়াইগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।আহতদের মধ্যে আজিত উদ্দিন(৫৫) ও মজির উদ্দিনের (৫৮) অবস্থা আশঙ্কাজনক।

স্থানীয়সূত্রে জানা যায়,ঢুলিয়া পশ্চিম পাড়া মসজিদে নিয়মিত ইমামতি করে বরাত আলী। আজ বরাত আলীকে বাদ দিয়ে ফজরের নামাজ জোর করে পড়ান সুকচান আলী। পরবর্তীতে যহর নামাজ বরাত আলী পড়ানোর সময় সুকচান আলী ও মসলেম মহুরী নামাজ না পড়ে চলে যায়। পরে বিকালে আসর নামাজের আগে মুসল্লিরা অজু করতে গেলে মসলেম মহুরি ও সুকচান আলীর নেতৃত্বে লাঠি হাসুয়া সহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মুসল্লিদের ওপর অনাকাঙ্খিত হামলা চালায় একদল সন্ত্রাসী। এ সময় ৮ জন ধর্মপ্রাণ মুসল্লি গুরুতর আহত হয়। আহতের মধ্যে ৪ জন হাসপাতালে ভর্তি আছে এবং বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত এস আই কামারুজ্জান বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। সঠিক সময় আমরা উপস্থিত হতে না পারলে বড় ধরনের দূর্ঘনটা ঘটতে পারতো। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে।

বড়াইগ্রাম থানার পুলিশ পরিদর্শক আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ থানায় আসে নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *